Header Ads

রেল নগরী পান্ডু এলাকায় দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা সংক্রমণ ,এলাকার বিভিন্ন ওয়ার্ড লক ডাউনের কবলে



নয়া ঠাহর প্রতিবেদন।

 রেল নগরী পান্ডু মালিগাঁও এলাকায় ব্যাপক হারে  করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে। এ  নিয়ে তীব্র আতঙ্কে রয়েছেন এলাকাবাসীরা । পান্ডুর বিভিন্ন এলাকা বর্তমানে কনটেইনমেন্ট জোনের আওতায় রয়েছে। করোনা সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার ফলে এলাকাবাসীরা কঠোর লক ডাউনের দাবি তুলেছিল।এই দাবি নিয়ে এলাকার লোকেরা স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা ও  জেলা প্রশাসনকে একটি স্মারকপত্র প্রদান করে। সোমবার পান্ডু এলাকাতে পুলিশ ও  নাগরিক সমাজের সহযোগিতায় একটি সচেতনতা সভার আয়োজন করা হয় ।সেখানে এলাকার লোকেদের সচেতন করার জন্য করোনা সংক্রমণ নিয়ে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হয়।

 একথা সত্যি যে এই  এলাকার লোকেরা সচেতন নয়। সামাজিক  দূরত্ব  পালন করা বা  নিয়মাবলী মেনে না চলার ফলে এলাকায় দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়েছে সংক্রমণ।তবে এলাকার সচেতন  লোকেরা করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে অনেক সতর্ক হয়ে গেছে এবং তাঁরাই  কঠোর লক ডাউনের দাবি করেছেন। এলাকার প্রায়  ২৫ জন লোকের শরীরে কোভিড পজেটিভ পাওয়া গেছে  আর একজন মহিলা করোনা সংক্রমনের ফলে মারা গেছে ।
 পান্ডুর বিভিন্ন এলাকা যেমন বিবিসি কলোনী ,লোকো কলোনী, জয়মতী নগর, নিউ কলোনী, মালিগাও রেলওয় স্কুল, আনন্দনগর,গৌশালা এই  এলাকাগুলিতে কনটেইনমেন্ট জোন ঘোষণা করা হয়েছে। প্রাপ্ত খবর অনুসারে পাণ্ডুর ২,৩,৪,৫,১০,১৫,১৬ ওয়ার্ডে লক ডাউন ঘোষণা করা হয়েছে
উল্লেখ্য যে কিছুদিন আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা পাণ্ডুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র (এফআর ইয়ু)  পরিদর্শন করেন যেখানে করোনা ভাইরাসের পরীক্ষা শুরু করা হয়েছে। এছাড়াও রাজ্যিক  স্বাস্থ্যমন্ত্রী পীযূষ হাজারিকা পান্ডু মালিগায়ের কনন্টেইনমেন্ট জোন গুলি পরিদর্শন করে এলাকার লোকেদের সচেতন হবার আহবান করেছিলেন।পাণ্ডুর লোকেরা সচেতন নয় বলেই তিনি মন্তব্য করেন। মন্ত্রী পীযূষ হাজারিকা বলেন যে একমাত্র সচেতনতাই এ রোগের হাত থেকে আমাদের বাঁচাতে পারবে।


ওদিকে উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ে কর্মরত এক উচ্চ অধিকারী বর্তমানে করোনা আক্রান্ত ।অনিত দৌলাত (প্রিন্সিপাল চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার) ও তার ছেলে উদয় দৌলাত  করোনাতে আক্রান্ত হয়েছেন। পিতা-পুত্রের বর্তমানে গৌহাটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে।

 এন এফ  রেলের  অন্য একজন  উচ্চ অধিকারী অজিত বৈশ্য  (মেকানিক্যাল বিভাগ ) করোণাতে আক্রান্ত হয়েছেন। এই দুজন উচ্চ অধিকারীরদের করোনা  শনাক্ত হবার পর রেলওয়ে মুখ্য কার্যালয়কে স্যানিটাইজ  করা হয়েছে। রেল বিভাগ এ বিষয়ে ব্যাপক সর্তকতা গ্রহণ করেছে।

No comments

Powered by Blogger.