Header Ads

হালালি প্রোগ্রেসিভ ওয়েলফেয়ার সোসাইটির ডাকা ৩৬ ঘন্টার বনধে জনজীবন স্তব্ধ ডিমা হাসাওয়ে

বিপ্লব দেব, হাফলং, ১৪ মেঃ  ডিএইচডি উগ্রপন্থী সংগঠনের প্রাক্তন সদস্য তথা ঠিকাদার সন্তোষ হোজাই হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত হাফলঙের ডিএসপি সূর্যকান্ত মরানের গ্রেফতারের দাবিতে এবং এই হত্যাকান্ডের সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়ে ভেঙ্গে দেওয়া ডিমা হালম দাওগা (ডিএইচডি) জঙ্গি সংগঠনের সদস্যদের নিয়ে গঠিত এনজিও হালালি প্রগ্রেসিভ ওয়েলফেয়ার সোসাইটির ডাকা ৩৬ ঘন্টার ডিমা হাসাও তথা ডিমারাজি বনধে সমগ্র ডিমারাজি এলাকায় জনজীবন স্তব্ধ হয়ে পড়ে।

লকডাউনের মধ্যে বৃহষ্পতিবার সকাল ৫ টা থেকে এই বনধ শুরু হয় চলবে শুক্রবার বিকেল ৫ টা পর্যন্ত। হালালি প্রগ্রেসিভ ওয়েলফেয়ার সোসাইটির ডাকা ৩৬ ঘন্টার বনধে পাহাড়ি জেলার সদর শহর হাফলং সহ মাইবাং,উমারাংশু সহ জেলার সর্বত্র ও ডিমারাজি এলাকায় বনধ ছিল সর্বাত্মক ও শান্তিপূর্ণ। বনধকে কেন্দ্র করে বৃহষ্পতিবার হাফলং শহরে দোকান পাট বাজার হাট সরকারি বেসরকারি কার্যালয় সবই ছিল বন্ধ। লকডাউন অমান্য করে বাড়ি ঘর ছেড়ে বিনা কাজে এতদিন মানুষ বাইরে বেরিয়ে আসলে ও বৃহষ্পতিবার হাফলং শহরের দৃশ্য ছিল সম্পূর্ণ অন্যরকম শহরের রাস্তাঘাটে দেখা যায়নি মানুষ চলাচল করতে। কার্যত জেলার প্রত্যেকটি এলাকা ছিল জনশূন্য। এদিকে ডিমা হালম দাওগার প্রাক্তন অধ্যক্ষ তথা হালালি প্রগ্রেসিভ ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সভাপতি দিলীপ নুনিসা সরকারের প্রতি ক্ষোভ ব্যক্ত করে বলেন গত ২৪ এপ্রিল সন্তোষ হোজাইকে অপহরন করে নৃশংস ভাবে খুন করার ২০ দিন অতিক্রান্ত হওয়ার পর ও এই খুনে অভিযুক্ত হাফলঙের ডিএসপি সদর সূর্যকান্ত মরানকে গ্রেফতার বা চাকুরী থেকে বরখাস্ত করেনি পুলিশ। সূর্যকান্ত মরানকে অভিযুক্ত করে হারাঙ্গাজাও থানায় সন্তোষ হোজাইর স্ত্রী জয়ন্তা হোজাই এক মামলা রুজু করার পর ও ডিমা হাসাও পুলিশ এনিয়ে কোনও পদক্ষেপ গ্রহন করেনি বলে অভিযোগ করে বলেন সন্তোষ হোজাইর খুনে যে ডিএসপি জড়িত এর তথ্য প্রমান আমাদের কাছে রয়েছে বলে মন্তব্য করে দিলীপ নুনিসা বলেন গৌহাটি হাইকোর্টের নির্দেশে রাজ্যের পুলিশ প্রধান ভাষ্কর জ্যোতি মহন্ত দক্ষিণ অসম প্রান্তের ডিআইজি দিলীপ কুমার দে-র নেতৃত্বে যে এসআইটি গঠন করা হয়েছে একে আমরা স্বাগত জানাই। কিন্তু আমরা চাইছি সন্তোষ হোজাই খুনের নিরপেক্ষ সিবিআই তদন্ত হউক। আর শীঘ্রই ভারত সরকার ও অসম সরকার এতে অনুমোদন জানিয়ে এই হত্যাকান্ডের ঘটনার নিরপেক্ষ সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিক। দিলীপ নুনিসার সন্তোষ হোজাই খুনে পুলিশের ডিএসপি জড়িত থাকার কথা সামনে আসার পরও অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সানোয়ালের নেতৃত্বে থাকা গৃহ বিভাগ এনিয়ে কোনও পদক্ষেপ করেনি। ভারত সরকারের সঙ্গে ডিএইচডি-র চুক্তি সাক্ষরিত হওয়ার পর এর ফলাফল এটাই কি এমন প্রশ্ন করে দিলীপ নুনিসা বলেন সন্তোষ হোজাই খুনের ঘটনার পর স্থানীয় বিধায়ক রাজ্যের পার্বত্য এলাকা উন্নয়ন বিভাগের মন্ত্রী ও সাংসদের নীরবতা পালন দূর্ভাগ্য জনক বলে মন্তব্য করেন দিলীপবাবু। তাছাড়া দিলীপ নুনিসা বলেন পুলিশের নেতৃত্বে ডিমা হাসাও জেলায় গুপ্তহত্যা হচ্ছে এতে আমরা ও ভীতিগ্রস্থ। তাই এই বনধের ডিএইচডি-র সাড়ে তিন হাজার প্রাক্তন সদস্য সন্তোষ হোজাই খুনের ন্যায় বিচারের দাবিতে জেলাশাসকের কার্যালয়ের সামনে অনিদৃষ্টকালের জন্য ধর্নায় বসবেন বলে জানিয়ে দিলীপ নুনিসা সন্তোষ হোজাইর হত্যাকাণ্ডের ন্যায় বিচারের জন্য বুদ্ধিজীবি ও সিভিল সোসাইটির সহযোগিতা চেয়েছেন।  

No comments

Powered by Blogger.