Header Ads

বহিঃরাজ্য থেকে হাফলঙে ফেরা মোট ৫০ জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে

বিপ্লব দেব, হাফলং ১৮ মেঃ রাজ্যে দ্রুত গতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। রাজ্যে করোনা ভাইরাস রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১০৪। ইতিমধ্যে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজ্যে ৩ জনের মৃত্যু ঘটেছে। করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতার প্রতি লক্ষ্য রেখে বহিঃরাজ্য দিল্লি নিউ জলপাইগুড়ি কাটিহার চেন্নাই থেকে ফিরে আসা ৫০ জনকে হাফলং জওহর নবদোয় বিদ্যালয়,শিক্ষা ভবন ও হাফলং শহরের একটি হোটেলে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে।
 
 এই ৫০ জনের মধ্যে প্রথম পর্যায়ে ১৪ জনের সোয়াব সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। দ্বিতীয় পর্যায়ে বাকিদের সোয়াব সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে। এদিকে জেলাপ্রশাসন সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে হাফলং মাইবাং মাহুর হারাঙ্গাজাওয়ে কভিড কেয়ার সেন্টার তৈরি করা হচ্ছে। এবং ব্লক পর্যায়ে মনিটরিং দল তৈরি করা হয়েছে। এই মনিটরিং দলকে ওই কভিড কেয়ার সেন্টার গুলিকে কর্মক্ষম করে তুলতে লাইন ডিপার্টমেন্ট গুলির কাজ করা নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তাছাড়া হাফলং শহরে ছয়টি লজকে কোয়ারিন্টাইন সেন্টার করেছে। বহিঃরাজ্য থেকে ফিরে আসাদের এসব লজে কোয়ারিন্টাইন করে রাখা হবে। তাছাড়া ডিমা হাসাও জেলায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে ৬৩ জনের সোয়াব সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানোর পর ৩১ জনের কভিড ১৯ টেষ্ট নিগেটিভ এসেছে। এদিকে চেন্নাইয়ে কর্মরত ডিমা হাসাও জেলার ৫৩ জন যুবক যুবতী নিজের গৃহ জেলায় ফিরতে না পেরে এখন এদের ঠাই হয়েছে রাস্তায়। তাই এদের নিজের গৃহ জেলায় ফিরিয়ে আনতে এবার সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলেন উত্তর কাছাড় পার্বত্য সিইএম দেবোলাল গার্লোসা। সিইএম রিলিফ ফান্ড থেকে চেন্নাইয়ে আটকে পড়া ৫৩ জনকে ফিরিয়ে আনার জন্য সোমবার ১ লক্ষ ৬ হাজার টাকা দিলেন দেবোলাল গার্লোসা।

No comments

Powered by Blogger.