Header Ads

করোনা ভাইরাস আতঙ্কের মধ্যে হাফলঙে শাক সব্জীর মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে ক্ষোভ জনমনে

বিপ্লব দেব, হাফলং ২১ মার্চঃ করোনা ভাইরাস বিশ্বজুরে ত্রাস সৃষ্টি করে রেখেছে। বর্তমানে ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলছে। তবে এখন পর্যন্ত অসমে করোনা ভাইরাস কভিড ১৯-য়ে আক্রান্ত কোনও রোগীর খবর পাওয়া যায়নি। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে করোনা ভাইরাস নিয়ে গুজব ছড়ানো হচ্ছে। ডিমা হাসাও জেলা এর থেকে বাদ যাচ্ছেনা। যার ফলে জেলাপ্রশাসনের পক্ষ থেকে এনিয়ে গুজব না ছড়ানোর আবেদন জানানো হচ্ছে। 

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জেলাপ্রশাসন ও ডিমা হাসাও জেলার স্বাস্থ্য বিভাগ শহর থেকে শুরু করে গ্রামে গঞ্জে ব্যাপক সজাগতা অভিযান চালাচ্ছে। এমনকি জেলার ১০ টি স্থানে মাইক যোগে সজাগতা চালানো হচ্ছে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ১২ টি সার্ভিলেন্স দল কাজ করছে বলে জানান জেলাশাসক অমিতাভ রাজখোয়া।  সতর্কতা ব্যবস্থা হিসেবে সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহন করেছে জেলাপ্রশাসন ও উত্তর কাছাড় পার্বত্য স্বশাসিত পরিষদ। এদিকে সতর্কতা মূলক ব্যবস্থা হিসেবে ডিমা হাসাও জেলায় সাপ্তাহিক হাট বন্ধ করার নির্দেশ জারি করে পার্বত্য পরিষদ। আজ শনিবার হাফলঙে সাপ্তাহিক হাটবার ছিল কিন্তু আজ হাফলঙে সাপ্তাহিক হাট না বসায়। কিছু অসাধু ব্যবসায়ী শাক সব্জীর দাম অত্যাধিক হারে বাড়িয়ে দিয়েছে। একদিকে করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক তার উপর বাজারে আগুন শনিবার বাজারে ঝিঙে প্রতিকিলো ১০০ টাকা ভেন্ডি প্রতিকিলো ১২০ টাকা টমেটো প্রতিকিলো ৮০ টাকা কাচালঙ্কা প্রতিকিলো ১২০ টাকা ফ্রেন্স বিন প্রতিকিলো ৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। হাফলং বাজারের কিছু অসাধু ব্যবসায়ী এভাবে শাক সব্জীর দাম বাড়িয়ে দিয়েছে বলে হাফলং শহরের সাধারন মানুষের অভিযোগ এভাবে হটাৎ করে শাক সব্জীর দাম বাড়িয়ে দেওয়ার পর ও জেলাপ্রশাসন বা উত্তর কাছাড় পার্বত্য স্বশাসিত পরিষদ কর্তৃপক্ষ এনিয়ে কোনও ব্যবস্থা গ্রহন করছে না বলে অভিযোগ করেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

No comments

Powered by Blogger.