Header Ads

কামাখ‍্যা তীর্থস্থান-র পর বরাকের পৌরাণিক সিদ্ধেশর কপিলাশ্রমে জনসমাগম বাতিল করোনা ভাইরাসের জন‍্য


শুভজিৎ রায়, হাইলাকান্দি : করোনা ভাইরাস  নিয়ে এখন নাজেহাল গোটা বিশ্ব। করোনা আতঙ্কের মাঝেই এখনও  পযর্ন্ত 119টি দেশ।  ভারতবর্ষে কোভিড-১৯ ভাইরাস প্রতিরোধে কামাখ্যার পর এবার সতর্কতা বরাক উপত্যকার পৌরাণিক ঐতিহ্যবাহী তথা  সিদ্ধেশ্বর কপিলাশ্রমে।জিলা প্রশাসনের নির্দেশানুযায়ী আজ বিকেল তিনটা হইতে অনির্দিষ্টকালের জন্য ভক্তদের  জনসমাগম আয়োজন বাতিল করা হয়েছে। উল্লেখ্য যে,প্রত্যক বৎসরে বারুণী স্নান কে কেন্দ্র করে ঢল নামে ভক্তদের। জনসমাগম হয় লক্ষণীয়। কেন্দ্র করে গড়ে তোলা হয় মেলা। তবে এবার সারা বিশ্বে ত্রাস সৃষ্টিকারী মারণব্যাধী ভাইরাস করোণা কোভিড-১৯ থেকে রক্ষা করতে তথা সতর্কতা বজায় রাখতে সবধরনের জনসমাগম সহ সিদ্ধেশ্বর কপিলাশ্রমে অনির্দিষ্টকালের জন্য মেলা সহ বারুণী স্নানে নিষেধাজ্ঞা জারি করে আজ বিকেল তিনটা হইতে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয় মন্দিরে। আজকের  এক বৈদ্যুতিন সংবাদ মাধ্যমের এক তথ্য মতে 236 জন করোনা ভাইরাস আক্রান্ত সংখ্যা। গত 24 ঘন্টায় নূতন 63 জন আক্রান্ত।  আজ সকাল এগারোটায় গোটা উপত্যকা সহ পার্শ্ববর্তী এলাকার পূণ্যার্তীদের স্বার্থে মন্দিরের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন ডেকে কমিটির সম্পাদক সূজন ভট্টাচার্য এমনটাই জানান। এবং সমগ্র বরাক উপত্যকা সহ আন্ত :রাজ্যের ভক্ত-প্রাণদের নিকট আহ্বান রাখেন সরকারের নির্দেশনায় সমর্থন করে সবধরনের সহযোগিতা করার জন্য। সরকারের নির্দেশ অনুসারে আজ বিকেল থেকে দর্শন-প্রণাম সবকিছুই আপাতত বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আগামী কাল থেকে কোনো ধরনের প্রণাম দর্শন সহ জমায়েত না করার জন্য আর্জি রাখেন কমিটির কর্মকর্তারা। পরবর্তী আদেশ না হওয়া পর্যন্ত ঘোষণা অনুযায়ী সবকিছু এমতাবস্থায় থাকবে বলে জানান মন্দির কমিটির কর্মকর্তারা ।এতে ভক্ত বৃন্দের স্বার্থে ও মারণব্যাধী থেকে সবাইকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে উক্ত কমিটির পক্ষ থেকে।জিলা উপায়ুক্ত কীর্তি জল্লির নির্দেশে জনসমাগম রুখতে ও করোণা ভাইরাস থেকে মুক্ত রাখতে অসম তথা কেন্দ্র সরকারের এ পদক্ষেপ কে সহযোগিতা করতে জনগণকে এগিয়ে আসার আহ্বান রাখেন। এছাড়া এদিন সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিজেপি সভাপতি স্বপন ভট্টাচার্য তিনি দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সতর্কবার্তা অনুযায়ী রবিবারের জনতা কার্ফুউ কে সমর্থন করে সবাই যেন গৃহবন্দী তথা বাড়ির বাইরে বেরোনো থেকে বিরত থাকতে আহ্বান রাখেন জেলা সভাপতি। রবিবার সকাল সাতটা থেকে রাত নয়টা অবধি বাড়ির বাইরে না যাওয়ার পরামর্শ দেন। এদিন সংবাদ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন আলগাপুর চক্রাধিকারীক তথা কমিটির সহ সভাপতি প্রদীপ গুপ্তা ও অতিরিক্ত আধিকারিক সন্তোষ নাথ, বিজেপি জিলা সভাপতি স্বপন ভট্টাচার্য,পাঁচগ্রাম জিপি সভাপতি সূরজ সেন, কমিটির কর্মী সঞ্জুদাস, কৃপাসিন্ধু দাস সহ এলাকার স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকরা।

No comments

Powered by Blogger.