Header Ads

কোন ভাবেই ধর্না উঠবে না--করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পরেও প্রদর্শনে অনড় শাহিনবাগ !!

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় 
 
শাহিনবাগে ধর্নায় অংশ নেওয়া একজনের মধ্যে করোনা ভাইরাসের লক্ষণ পাওয়া গেছে। ওই ব্যাক্তি দুই মাস ধরে লাগাতার ধর্নায় অংশ নিয়েছিলেন, তিনি জাহাঙ্গীরপুরী এলাকার বাসিন্দা বলে জানা যাচ্ছে। ডাক্তাররা তাঁকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। পরীক্ষার পরে যদি ওই ব্যাক্তির মধ্যে করোনা পাওয়া যায়, তাহলে আশঙ্কা করা হচ্ছে যে, ওই প্রদর্শনে অংশ নেওয়া অনেকের মধ্যেই করোনা ছড়িয়ে পড়বে।
 
করোনা ভাইরাসের প্রভাব শাহিনবাগের ধর্নায় দেখা যাচ্ছে। সেখানে প্রতিদিন ভিড় কমে যাচ্ছে। প্রদর্শনকারীদের মধ্যে এখনো পর্যন্ত দুজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। আর এরপর থেকে আন্দোলনকারীদের মধ্যে আতঙ্কের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।
সোশ্যাল মিডিয়ায়ও এই নিয়ে মানুষ নানারকম কথা বলছেন। আর এরই মধ্যে কিছু আন্দোলনরত মহিলা জানিয়েছেন যে, তাঁরা কোন ভাবেই ধর্না তুলবেন না। জেলা প্রশাসনের আধিকারিকরা ধর্নায় থাকা আন্দোলনকারীদের বোঝাচ্ছেন যে, সেখানে থাকা মানে জীবন নিয়ে টানাটানি হতে পারে। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কায় লাগাতার আন্দোলনকারীদের হাসপাতালে ভর্তি করানোর পর শাহিনবাগে আরও আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু বিনা পরিশ্রমে দিন-হাজারি ও খাবারের বিনিময়ে মাঝে মাঝে চিৎকার করার সুযোগ যে তারা ছাড়তে রাজি নয় তা কারুর বুঝতে অসুবিধে হচ্ছে না।
শাহিনবাগ থেকে আজ রবিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আবেদনে জনতা কার্ফু পালন করবে না বলে পরিস্কার জানিয়ে দিয়েছে তারা। তারা জানিয়েছে যে, রবিবারও শাহিনবাগে ধর্না জারি থাকবে। সিএএ রদ না করলে কোন ভাবেই শাহিনবাগের রাস্তা খুলে দেওয়া হবে না। শাহিনবাগের প্রদর্শন ৯৮ দিন হয়ে গেছে। আর এই প্রদর্শনের কারণে দিল্লী – নয়ডা যাওয়ার রাস্তায় মানুষেরা বড় বিপদে পড়েছে।

No comments

Powered by Blogger.