Header Ads

যে কোনও এটিএম থেকে টাকা তোলার ওপর চার্জ কাটা হবে না, একাধিক বড়সড় ঘোষণা নির্মলার !!

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় 
 
কোভিড ১৯ এর হানা ক্রমাগত বিষ দাঁত বসাতে শুরু করেছে ভারতীয় অর্থনীতিতে। দেশে যখন কোভিড হানার আক্রান্তের সংখ্যা ও মৃতের সংখ্যা লাফিয়ে বাড়ছে, তখন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন একাধিক বড়সড় ঘোষণা এদিন করেন। একনজরে দেখে নেওয়া যাক , তিনি ব্যাঙ্কিং সেক্টর নিয়ে কোন কোন বড় ঘোষণা করেছেন। 
 
এদিন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী জানান , যেকোনও ব্য়াঙ্কের এটিএম থেকে টাকা তোলার ওপর যে চার্জ লাগত , তা আর লাগছে না আগামী ৩ মাসের জন্য। সাম্প্রতিক পরিস্থিতির দিকে নজর রেখে কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত। আগে একটি ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্ট থেকে অন্য ব্যাঙ্কের এটিএম-এ টাকা তোলার ক্ষেত্রে বেশ কিছু নিয়ম ও চার্জ ধার্য ছিল। বর্তমানে ৩ মাসের জন্য তা লাগছে না।
সেভিংস অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালেন্সের সাপেক্ষে যে চার্জ ধার্য করা ছিল,তাও সম্পূর্ণ ভাবে তুলে নিল সরকার। গোটা দেশে যেভাবে লক ডাউনের পরিস্থিতি রয়েছে তার দিকে নজর রেখেই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের এমন বড় সিদ্ধান্ত এসেছে। এতদিন ন্যূনতম ব্যালেন্স অ্যাকাউন্টে না থাকলে চার্জ ধার্য করা হত, তা আপাতত নেওয়া হবে না।
সরকারের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে যে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প , যাদের লক ডাউনের জন্য ক্ষতি হচ্ছে, তাঁরা যাতে দেউলিয়ার দিকে না যান সেজন্য ঋণের ক্ষেত্রে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। অর্থাৎ যাঁরা ১ লাখ টাকার ঋণের অনাদায়ে ভুগছেন , তাঁদের ১ কোটি টাকা পর্যন্ত আপাতত ছাড় দিয়েছে সরকার। যাতে ছোট বা মাঝারি শিল্প ধরাশায়ী না হয়ে যায় করোনা ইস্যুতে লক ডাউনের জন্য।
নির্মলা সীতারমন জানিয়েছেন, আপাতত ছয় মাসের জন্য দেউলিয়া বিষয়ক ' ইনসলভেন্সি ও ব্যাঙ্করাপসি কোড' এর ৭,৯,১০ সেকশন সাসপেন্ড করছে সরকার। যে সমস্ত সংস্থার ব্যাঙ্ক ঋণ রয়েছে তারা যেন রাতারাতি দেউলিয়া না হয়ে যায়, তার জন্যই এমন ব্যবস্থা। সরকার জানিয়েছে, যে সমস্ত সংস্থার ৫ কোটি টাকা টার্নওভার রয়েছে, তাদের জিএসটি রিটারনের সময় কোনও লেট ফি দিতে হবে না। অর্থাৎ রিটার্ন ১৫ দিন দেরিতে দিলেও জরিমানা দিতে হবে না।

No comments

Powered by Blogger.