Header Ads

কাঁদতে কাঁদতেই পার্থ’র বৈঠক ছাড়লেন বৈশাখী, সম্পর্কের জটিলতা নিয়ে জল্পনা !!

 বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায়
পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে মাঝে মধ্যেই বৈঠক করতে দেখা গেছে কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে। কখনও তা শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে কখনও নিজের কলেজ নিয়ে। সূত্রের খবরব অনুযায়ী এরকমই একটি বৈঠক চলছিল বিকাশ ভবনে। কলেজ পরিচালন সমিতির বৈঠকে এই দুজন ছাড়াও হাজির ছিলেন অনেকেই। তবে বৈঠক শেষ হওয়ার আগেই বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে কাঁদতে কাঁদতে বেরিয়ে যেতে দেখা যায় বলে সূত্রের খবর।

মিল্লি আল আমিন কলেজের পরিচালন কমিটির বৈঠক ডাকা হয়েছিল বিকাশ ভবনে সেখানে অভ্যন্তরীণ নানা সমস্যা রয়েছে। যা নিয়ে হয় ত্রিপাক্ষিক বৈঠক।
সূত্রের খবর অনুযায়ী, বৈঠকের শুরুতেই পার্থ চট্টোপাধ্যায় করোনা ভাইরাসের সঙ্গে তুলনা করেন বৈশাখীকে। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস যেমন পশ্চিমবঙ্গে ছড়িয়ে পড়েছে, তেমনই মিল্লি আল আমিন কলেজের ভাইরাস হচ্ছেন বৈশাখী।
আরও জানা গিয়েছে ওই বৈঠকে সবাইকে চা দেওয়া হলেও, বৈশাখীকে তা প্রথমে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ ! এছাড়াও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানিয়ে দেওয়া হয়, কলেজের শিক্ষকদের প্রাপ্ত সুবিধার কাটছাঁট করা হবে। পাশাপাশি যে শিক্ষকের বিরুদ্ধে বৈশাখী অপমানের অভিযোগ করেন, তাঁকে শিক্ষা দফতরের উঁচু পদে বসানো হবে বলেও জানিয়ে দেওয়া হয়। যা নিয়ে বৈঠকেই প্রতিবাদ করেন বৈশাখী। পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়ে দেন, তাঁর সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। সূত্রের আরও খরব সেই সময় হাসাহাসি শুরু করে দেন কলেজের পরিচালন সমিতির সদস্যরা।
এরপর বৈশাখী কাঁদতে কাঁদতে বৈঠক ছেড়ে বেরিয়ে যান বলে জানা গিয়েছে। সূত্রের খবর অনুযায়ী, নবান্নে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈশাখীর বৈঠককে মেনে নিতে পারেননি পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

No comments

Powered by Blogger.