Header Ads

করোনা ভাইরাস আতঙ্কের সঙ্গে নানা গুজব, আর সোস্যাল মিডিয়ার ফেক নিউজ জনজীবনকে বিপৰ্যস্ত করে তুলেছে



অমল গুপ্ত গুয়াহাটি : করোনা ভাইরাস আতঙ্ক সেই সঙ্গে নানা গুজবের ফলে অসমের জনজীবন বিপর্যস্ত,  দেশে 155 জোড়া ট্রেনের সঙ্গে অসমে 26 টি যাত্রীবাহী ট্রেন বাতিল করা হয়েছে, গুয়াহাটি মহানগরের পথে ঘাটে ভিড় নেই, বাস, ট্র্যাকার অটো প্রভৃতি যানবাহনগুলিতে নজিরবিহীনভাবে যাত্রী কম, হাট বাজারে ভিড় নেই। প্রধান কর্মকান্ডের স্থল জনতা ভবনে আম জনতার প্রবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে,  সরকারি কর্মচারীদের বায়োমেট্রিক এটেডেন্স বন্ধ করে রেজিস্টারে সই করে অফিসে ঢুকতে হচ্ছে। সাংসদ হিসাবে প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈই আজ সংসদে শপথ গ্রহণ করেন, মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল এবং অর্থমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মা সেই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দিল্লি গেছেন। আগামীকাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দেশের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকের কথা আছে। মুখ্যমন্ত্রীর অনুপস্থিতিতে জনতা ভবনেও মন্ত্রীদের উপস্থিতি কম ছিল। বিধাসভা ভবনের প্রধান ফটকে করোনা ভাইরাস সম্পর্কে এক ব্যানার লাগিয়ে মানুষদের সজাগ করার চেষ্টা হয়েছে। তথ্য ও জনসংযোগ বিভাগের ডিরেক্টর অনুপ চৌধুরী আজ দিসপুর কার্যালয়ে কোভিড 19 জীবাণু সম্পর্কে এক সজাগতা সভা করেন। এই কার্যালয় থেকে লাউড স্পিকারের মাধ্যমে আমজনতাকে সতর্ক করা হয়। মুখ্যসচিব কুমার সঞ্জয় কৃষ্ণ আজ এক বিজ্ঞপ্তি যোগে জনসাধারণকে বিশ্বব্যাপী প্যানাডেমিক মারাত্মক রোগ সম্পর্কে সতর্ক করে সাধারণ নিয়মাবলী জানিয়েছেন, 50 জনের বেশি জন সমাগম বন্ধ ও 1 মিটারের ব্যবধানে আম জনতাকে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন। এদিকে আজ ডিজিপি ভাস্করজ্যোতি মহন্ত হটাৎ প্রধান বাজার ফেন্সি বাজারে ভিড় কমানোর চেষ্টা করেন। কেন্দ্রীয় সরকারের অফিসে কর্মচারীদের গ্রেড হিসাবে 50 ভাগ কর্মচারীকে উপস্থিত থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এই রোগ যাতে দ্রুত ছড়িয়ে না পড়ে তার জন্য 65 বছরের বেশী এবং 10 বছরের কম শিশুদের ঘর থেকে না বেরোনোর পরামর্শ দিয়ে সরকার নির্দেশ দিতে পারে বলে পি আই বি সূত্রের খবরে জানা গেছে। তবে চিকিৎসার কাজে যাদের বাইরে বেরোতে হয় সেই সব 65 বছরের বেশি বয়সের বয়োজ্যেষ্ঠ নাগরিকদের ছাড় দেওয়া হয়েছে। আজ পদ্মশ্রী ডাক্তার ইলিয়াস আলী জানান, মাছ, মাংস খেলে কোভিড 19 জীবাণুতে আক্রান্ত হবে বলে অযথা গুজব ছড়ানো হচ্ছে, যার কোনো ভিত্তি নেই। জোর দিয়ে বলেন,  মিথ্যা গুজব রটানো হচ্ছে, যে কেউ নির্ভয়ে মাছ-মাংস খেতে পারেন। গ্লোবাল হাসপাতালের কর্ণধার ডাক্তার আলী বলেন, বাজারের মাস্ক কনতে হবে,  স্যানিটাইজার কিনতে হবে তার কোনো মানে নেই, ঘরে বসে সাধারণ পরিষ্কার কাপড়ের টুকরো দিয়ে মাস্ক তৈরি করা যায়। ঘরে সাবান দিয়ে হাত ধুলে কোনো রোগ হবে না, তবে বিশুদ্ধ জল ব্যবহার করতে হবে। জনসংখ্যা বিশেযজ্ঞ পদ্মশ্রী ডাক্তার আলী দাবি করেন করোনা ভাইরাসের সঙ্গে জন বিস্ফোরণের সম্পর্ক আছে। এই সংক্রামক রোগ বৃহৎ গোষ্ঠীর জীবাণু, মানুষের সঙ্গে মানুষের সম্পর্কের ফলে এই রোগ ছড়াচ্ছে।

No comments

Powered by Blogger.