Header Ads

সিএএ বিরোধী মন্তব্য, জাতীয় নিরাপত্তা আইন প্রয়োগ করা হল ডাঃ কাফিল খানের বিরুদ্ধে

নয়া ঠাহর ওয়েব ডেস্ক -- 14 ফেব্রুয়ারি

আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ে সিএএ-র বিরুদ্ধে প্ররোচনামূলক বক্তৃতা  দেওয়ার অভিযোগে গত ২৯ জানুয়ারি মুম্বই থেকে গ্রেফতার করা হয়েছিল ডাঃ কাফিল খানকে। গত সোমবার তাঁর জামিন মঞ্জুর হয় । এবারে কাফিল খানের বিরুদ্ধে জাতীয় নিরাপত্তা আইন প্রয়োগ করা হয়  । যার ফলে এখনই তাঁর ছাড়া পাওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই।
ছবি, সৌঃ আন্তৰ্জাল
জাতীয় নিরাপত্তা আইনে (এনএসএ) কাউকে গ্রেফতার করা হলে ধৃতকে যতদিন খুশি আটকে রাখা যায় । অনেক ক্ষেত্রেই ধৃতকে তার কারণ জানানোরও দায় থাকে না পুলিশের ।

শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ কাফিল খান সংবাদ শিরোনামে এসেছিলেন ২০১৭ সালে  । ওই বছরের আগস্ট মাসে ৬০ জন শিশুর অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু হয়েছিল গোরক্ষপুর বিআরডি মেডিক্যাল কলেজে । তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, অক্সিজেনের যে অভাব হতে পারে তা তিনি কর্তৃপক্ষকে জানাননি সময় মতো । ঘটনার পর তড়িঘড়ি সাসপেন্ড হন ডাঃ কাফিল খান। পরে গত বছর তাঁকে ' ক্লিনচিট' দেয় উত্তরপ্রদেশ প্রশাসন । তদন্ত কমিটির রিপোর্টে নির্দোষ প্রমাণ হন কাফিল খান ।

মুম্বইতে সিএএ বিরোধী প্রতিবাদ আন্দোলনে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন কাফিল খান । উত্তরপ্রদেশ পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স তাঁকে মুম্বইয়ের বিমানবন্দর থেকে আটক করেছিল, মুম্বই পুলিশের সহায়তায় । গত সোমবার ৬০ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডকে জামিন পেয়েছিলেন তিনি ।

No comments

Powered by Blogger.