Header Ads

প্রয়াত হলেন নেতাজির কাছে শের-এ-হিন্দ উপাধি পাওয়া আজাদ হিন্দ ফৌজের জওয়ান শের সিং !!

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায়
নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু’র আজাদ হিন্দ ফৌজ-এর সৈনিক শের সিং  শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন। মঙ্গলবার সকালে তিনি নিজের পৈতৃক ভিটায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মন্ডি জেলার সরকাঘাটের পরসদা হবানি পঞ্চায়েতের ত্রিলোচন কোঠি গ্রামের বাসিন্দা শের সিং ৯৮ বছর বয়সী ছিলেন। তিনি বিগত ২ বছর ধরে অসুস্থ ছিলেন, আর ওঁর চিকিৎসার খরচ সরকার বহন করছিল।

মঙ্গলবার সম্পূর্ণ রাজকীয় সন্মানের সাথে ওঁর শেষকৃত্য করা হয়। শের সিং ২৫ বছর বয়সেই সুভাষ চন্দ্র বসুর সেনা আজাদ হিন্দ ফৌজে যোগ দেন। এরপর তিনি ইংরেজদের বিরুদ্ধে রেঙ্গুন আর বার্মায় লড়াই করেন। উনি বীরত্বের সাথে ইংরেজ সেনাদের বিরুদ্ধে লড়াই করেছিলেন। ওঁর পরাক্রম দেখে স্বয়ং নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু ওঁকে শের-এ-হিন্দ উপাধি দিয়ে সন্মানিত করেন।
এরপর ওঁর দল দুই বছর পর্যন্ত বার্মার ভয়ঙ্কর জঙ্গলে জীবন কাটান ইংরেজদের সাথে লড়াই করে। যখন তিনি যুদ্ধ শেষ করে জরাজীর্ণ অবস্থায় নিজের বাড়ি পৌঁছান, ততদিনে দেশ স্বাধীন হয়ে গিয়েছিল। এরপর তিনি নিজের জমিতে চাষবাসের পাশাপাশি সংসারের প্রতি নিজের কর্তব্য পালন করতে ব্যস্ত হয়ে যান। এরপর ভারত সরকার যখন আজাদ হিন্দ ফৌজের জওয়ানদের পেনশন প্রকল্প চালু করে, তখন তিনি সন্মানের সাথে নিজের পরিবারের ভরণ পোষণ করেন।
স্বর্গীয় শের সিং ৯৪ বছর আয়ু পর্যন্ত প্রতি বছর ১৫ই আগস্ট আর ২৬ জানুয়ারির অনুষ্ঠানে অংশ নিতেন। প্রশাসন ওনাকে সন্মানের সাথে বাড়ি থেকে নিয়ে আসা আর নিয়ে যাওয়া করত। অনুষ্ঠানে ওঁকে বিশিষ্ট অতিথি’র সন্মান দেওয়া হত। ওঁর মৃত্যুর খবর পেয়ে স্থানীয় প্রশাসন ওঁর শেষকৃত্যে অংশ নিয়েছিল।

No comments

Powered by Blogger.