Header Ads

উদাহরণ তৃণমূল, পুরসভার নির্বাচন নিয়ে রাজ্য নেতৃত্বের একাংশের সঙ্গে 'নীতি' নিয়ে দ্বন্দ্ব মুকুলের !!

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় 

কলকাতা পুরসভা নির্বাচনে কার্যত 'নীতিগত' দ্বন্দ্ব রাজ্য বিজেপিতে। একদিকে রাজ্য নেতৃত্বের একাংশ চাইছেন সেলিব্রিটিদের প্রার্থী করতে। সূত্রের খবর অনুযায়ী, সেই পরিস্থিতিতে গুরুত্বপূর্ণ নেতা মুকুল রায় চাইছেন পরিচিত মুখদের যেন প্রার্থী করা হয়।

লোকসভা ভোটের আগে পরে টলিউডের অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। তাঁদের মধ্যে অনেককেই এবার কলকাতা পুরসভা নির্বাচনে বিজেপির প্রার্থী করা হতে পারে বলে সূত্রের খবর। ১৪৪ টি ওয়ার্ডের মধ্যে অন্তত ১৫-১৬ টি আসনে সেলিব্রিটিদের প্রার্থী করতে চায় বিজেপি রাজ্য নেতৃত্বের একাংশ।

লোকসভা নির্বাচনে আগে ও পরে টলিউডের যেসব সেলিব্রিটিরা বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন, তাঁদের মধ্যে রয়েছেন, অঞ্জনা বসু, পার্নো মিত্র, বিশ্বজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়, অরিন্দম হালদার(লামা), মৌমিতা গুপ্ত, কাঞ্চনা মৈত্র, রূপাঞ্জনা মিত্র, ঋষি কৌশিক।

রাজ্য নেতৃত্বের যে অংশ সেলিব্রিটিদের প্রার্থী করতে চাইছেন, তারা উদাহরণ হিসেবে তুলে ধরছেন লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের প্রার্থী তালিকার কথা। সেই নির্বাচনে তৃণমূল দেব, মিমি ও নুসরত প্রার্থী করেছিল। দেব পুরনো হলেও মিমি ও নুসরত ছিলেন একেবারেই নতুন। কিন্তু তাঁরা সবাই জিতে যান। অন্যদিকে বিজেপির তরফে হুগলি আসন থেকে জয়ী হয়েছিলেন একমাত্রা সেলেব মুখ লকেট চট্টোপাধ্যায়।
যদিও রাজ্য বিজেপির অপর অংশ বলছেন লোকসভা নির্বাচন আর পুরসভা নির্বাচন আলাদা। সূত্রের খবর অনুযায়ী পুরসভা নির্বাচনে সেলিব্রিটিদের দিয়ে জয়লাভ করা আদৌ সম্ভব কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তাঁরা। এই অংশে রয়েছেন মুকুল রায়।
সূত্রের খবর অনুযায়ী মুকুল রায় বলেছেন পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূলকে আনার ২০১১ ফর্মুলা কাজে লাগানো উচিত। তাঁর মতে, সেই ভোটে প্রার্থী করা হয়েছিল ফিরহাদ হাকিম, শোভন চট্টোপাধ্যায়ের মতো হেভিওয়েটকে। নতুন মুখের থেকে বড় নামেই ভরসা রেখেছিলেন ভোটাররা।

No comments

Powered by Blogger.