Header Ads

উত্তরবঙ্গের লোকদেবতা মাষাণ, ২১ ফুটের মূর্তি পুজো ঘিরে উন্মাদনা !!

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় 
 
উত্তরবঙ্গের লোকদেবতা মাষাণ দেবতার পুজো মেলা ও লোকসংস্কৃতি উৎসব শুরু হল। অসম বাংলা সীমান্তের বারকোদালী চৌপথী সংলগ্ন ময়দানে। এই মেলা দেখার জন্য দূর দূরান্ত থেকে প্রচুর দর্শনার্থী ভিড় করেন। মঙ্গলবার ২১ হাত মাষাণ পূজা ও উত্তরবঙ্গ লোক সংস্কৃতি মেলা ও প্রদর্শনীর আয়োজন করে বারকোদালী ইয়ং ক্লাব। এই মেলায় মূর্তির আবরণ উন্মোচন করেন জেলাপরিষদের সহ সভাধিপতি পুষ্পিতা রায় ডাকুয়া। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডঃ ধর্ম নারায়ণ বর্মা, তুফানগঞ্জ ২ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কল্পনা সিংহ বর্মন সহ বিশিষ্ট রা। 

তুফানগঞ্জ ২ নম্বর ব্লকের বারকোদালী ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের ইয়ং ক্লাবের পরিচালনায় ২১ হাত মাষাণ পূজা অনুষ্ঠিত হল। একদিকে দেবতার পূজা অন্যদিকে এই মেলা চলবে ৭ দিন। মনষ্কামনা পূর্ণ হওয়ায় গ্রাম দেবতার পুজো দিতে আসেন অসম বাংলার বহু ভক্ত। ১১ বছর ধরে এই পুজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। পাশাপাশি উত্তরবঙ্গের লোক সংস্কৃতি প্রদর্শনীর আয়োজনও করা হয় এখানে।
উত্তরবঙ্গের মানুষ পূর্বে যেসব জিনিস ব্যবহার করত এখন তা লুপ্ত প্রায় সেই সব জিনিস তুলে ধরা হয় এই প্রদর্শনীতে। মেলা কমিটির সদস্য নিখিল চন্দ্র প্রধান এই বিষয়ে জানান, আমরা ১১ বছর ধরে এই মেলা করে আসছি।এই মেলা উত্তর বাংলার গৌরব। সাত দিন ধরে চলবে। এই মেলায় শেষের ৪ দিন ভাওয়াইয়া সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এই মেলা দেখতে অসম বাংলার প্রচুর ভক্ত আসেন। এবং মনস্কামনা পূর্ণ হলে প্রণামী প্রদান করেন ভক্তরা। মেলায় এসে এক দর্শনার্থী গণেশ বর্মন জানান, দীর্ঘদিন ধরে স্ত্রী দুরারোগ্য ব্যধিতে আক্রান্ত ছিলেন, পরবর্তীতে দেবতার কাছে মানত করে স্ত্রীর রোগ সেরে যাওয়ায় এ বছর আমিেএই দেবতার কাছে পাঁঠা উৎসর্গ করেছি। এ বিষয়ে শিউলি বর্মন বলেন মাষাণ বাবার কাছে মানত করে আমার পুত্র সন্তান হয়েছে, তাই এবার বাবার কাছে উৎসর্গ করতে পাঁঠা ও পায়রা নিয়ে এসেছি!

No comments

Powered by Blogger.