Header Ads

পেঁয়াজের মূল্য নিয়ন্ত্রণের জন্য কামরুপ জেলার যোগান বিভাগের অভিযান,প্রতি কেজিতে ৭০টাকা খুচুরা মূল্য নির্ধারণ



নয়া ঠাহর প্রতিবেদন,গুয়াহাটি । কামরুপ জেলার খাদ্য ও অসামরিক বিভাগ আর গ্রাহক পরিক্রমা বিভাগের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত উপায়ুক্ত বিপুল কুমার দাসের সভাপতিত্বে শুক্রবার জেলা উপায়ুক্ত কার্যালয় এই বিভাগের সমস্ত উচ্চ পদস্থ অধিকারীদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত এক সভাতে গুয়াহাটি বাজারের আলু পেঁয়াজের পাইকারি ও খুচরা মূল্যের সাথে জড়িত বিভিন্ন বিষয়ের উপর আলোচনা করা হয় ।এ প্রসঙ্গে বিপুল কুমার দাস বলেন যে সম্প্রতি পেঁয়াজের মূল্য ক্রমান্বয়ে কমে আসছে আর গুয়াহাটির ইই পাইকারি ব্যবসায়ীরাও খুচরা ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজের দাম কম করে বিক্রি করছে ।এর মাঝে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা সাধারণ গ্রাহকদের আগের বর্ধিত মূল্য পেঁয়াজ বিক্রি করাটা জেলাশাসকের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। এ প্রসঙ্গে বিপুল কুমার দাস বলেন যে কামরূপ জেলার খাদ্য যোগান বিভাগের উচ্চপদস্থ অধিকারীরা ইতিমধ্যে বিভিন্ন বাজারে অভিযান চালিয়ে পেঁয়াজের অসাধু ব্যবসায়ীরা যাতে সাধারণ লোকদের থেকে অধিক দাম নিয়ে পেঁয়াজ বিক্রি করতে না পারে সেদিকে নজর রাখছে। যোগান বিভাগের অধিকারীরা বৃহস্পতিবার গুয়াহাটি শহরের বেলতলা বাজারে অভিযান চালিয়ে কিছু সংখ্যক অসাধু ব্যবসায়ী যারা বেশি মূল্য দিয়ে পেঁয়াজ বিক্রি করছিল তাদের ধরে প্রায় ২০০ কিগ্রাম পেঁয়াজ আটক করে এই বিভাগটি ।পরে সেই পেঁয়াজ বেলতলা এলাকাতে সুলভ মূল্যের দোকানের দ্বারা উচিত মূল্যে বিক্রি করার ব্যবস্থা করে ।এদিনের সভাতে পেঁয়াজের পাইকারি বাজারের সাথে জড়িত বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করা হয় ।শুক্রবার পেঁয়াজের  খুচরা মূল্য প্রতি কিলোগ্রাম সর্বাধিক ৭০ টাকা নির্ধারণ করা হয়। উল্লেখনীয় যে পেঁয়াজের মূল্য ক্রমান্বয়ে কমে আসার পরিপ্রেক্ষিতে গুয়াহাটিতে প্রতিদিনই পেঁয়াজের পাইকারি ও খুচরা মূল্য ক্রমান্বয়ে কমে করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে ।যোগান বিভাগের অধিকারীরা গুয়াহাটির বাজারগুলিতে নিয়মিতভাবে পরিদর্শন করে  কোন অসাধু ব্যবসায়ী যাতে আলু পেঁয়াজ অতিরিক্ত দামে বিক্রি করতে না পারে সেদিকে নজর রেখেছে ।এসম্পর্কে অনুভাষ যন্ত্রের দ্বারা  প্রচারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

No comments

Powered by Blogger.