Header Ads

স্কুলের প্রশ্নপত্রেও রাজনৈতিক প্রচার? কবে সিঙ্গুরে সরষে বীজ ছড়িয়ে ছিলেন মমতা, এলো প্রশ্ন !

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষাব্যাবস্থায় মমতা ব্যানার্জীকে কেন্দ্র করে আবার নতুন বিতর্ক সামনে এসেছে। ছাত্র জীবনে ইতিহাস বই পড়ার মূল উদেশ্য হলো দেশের ইতিহাসকে জানা, অতীতের ভুল থেকে শিক্ষা নেওয়া, মহাপুরুষদের জীবনী থেকে প্রেরণা নেওয়া ইত্যাদি ইত্যাদি। যদিও ভারতের বেশিরভাগ ইতিহাস পাঠ্যপুস্তকে বিকৃত করে লেখাও হয়। ভারতের ভিন্ন ভিন্ন স্কুলে পড়ানো ইতিহাস বই বিদেশী আক্রমণকারী মুঘল ও ইংরেজদের চরণবন্দনার প্রবণতাও করতে দেখা গেছে। 
প্রশ্ন রাখা হয় ইংরেজদের ভারতে আসার সুফল গুলি লিখ, মুঘলদের তৈরি প্ৰথম স্থাপত্য ভাস্কর্যের নাম লিখ। এসব সম্পর্কে অবশ্য ভারতের সচেতন নাগরিকরা ভালোভাবেই অবগত। এখন এ সব কিছুকে ছাপিয়ে পশ্চিমবঙ্গ থেকে এমন নজির সামনে আসছে যা অবাক করার মতো। পশ্চিমবঙ্গের সিঙ্গুরের মহামায়া স্কুলের অষ্টম শ্রেণীর ইতিহাস প্রশ্ন পত্রে অবাক করার মতো প্রশ্ন করা হয়েছে।
প্রশ্ন এই যে, শ্রীমতী মমতা বন্দোপাধ্যায় সিঙ্গুরের মাটিতে কতো সালে সরষের বীজ ফেলেছিলেন। উত্তরের জন্য অবশ্য বিকল্পও দেওয়া হয়েছে। ২০১৬ সালের অক্টোবর মাসের তিনটি তারিখকে বিকল্প হিসেবে দেওয়া হয়েছে। আর এই নিয়েই বিতর্ক শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষা ব্যবস্থাকে রাজনৈতিক প্রচারমাধ্যম হিসেবে তৃণমূল কংগ্রেস ব্যাবহার করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
পশ্চিমবঙ্গের ছাত্রছাত্রীদের অবস্থা এমন যে তারা পশ্চিমবঙ্গ তৈরির ইতিহাসটাও ভাল করে জানে না। কিন্তু তাদের জোর করে পড়ানো হচ্ছে সিঙ্গুরে মমতা কত সালে সরষের বীজ ফেলেছেন ! এ সব নিয়ে পড়ানো হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ভারতের ইতিহাস, পশ্চিমবঙ্গের ইতিহাস, পশ্চিবঙ্গের প্রাচীন রাজা ও তাদের রাজত্বের ইতিহাস না পড়িয়ে কেন এমন রাজনীতি সম্পর্কিত প্রশ্ন করা হচ্ছে তা নিয়েই সোশ্যাল মিডিয়ায় চর্চা শুরু হয়েছে !

No comments

Powered by Blogger.