Header Ads

৪৪.৩১ লক্ষ জবকার্ডধারীর বিপরীতে মাত্র ৩৪৪৫ জন শ্রমিক কাজ পেয়েছে অভিযােগ উড়িয়ে দিলেন


নয়া ঠাহর প্রতিবেদন
ভারত সরকার পঞ্চায়েত ও গ্রামােন্নয়ন বিভাগের অধীনে এমজিএনরেগারঅন্তর্গত কর্মসূচিগুলি রূপায়ণের জন্য ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে ৫০০ লক্ষ কর্মদিবস এবং চলিত ২০১৯-২০ অথবর্ষে ৫০০ দিন কর্মদিবসের লক্ষ্যমাত্রা ধার্য করেছিল। এর বিপরীতে গত অর্থবর্ষে ১০০ শতাংশেরও বেশি কর্মদিবস অতিক্রম করতে সমর্থ হয়েছে অসম সরকার। বর্ষকালেও চলিত অর্থবর্ষে বর্তমান থেকে শ্রমিকদের প্রায়ই ৭৩ শতাংশ কর্মদিবস প্রদান করতে সমর্থ হয়েছে। বিগত অর্থবর্ষে এবং চলিত অর্থবর্ষে সর্বমােট প্রায় ২,২০,০০০ সংখ্যক কর্মদিবসের বিপরীতে ৪৩,৬১৬ সংখ্যক কর্মদিবস সম্পূর্ণ হয়েছে। ২০১৭-১৮ অর্থবর্ষে এমজিএনরেগার অধীন অসম সরকার কেন্দ্রীয় অনুদান হিসাবে অগ্রিম ২০০ কোটি টাকার অর্থ অনুমােদন করেছিল। ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে কেন্দ্রীয় পুঁজির ৭.৬৫ কোটি টাকা এবং ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে অনুমােদন করা ২১৯.২৩ কোটি টাকা। অগ্রিম অর্থের বিপরীতে ১৯২.৩৫ কোটি টাকা অসম সরকারকে পরিশােধ করতে হয়। এ পর্যন্ত এমজিএনরেগার কর্মসূচির অধীন সর্বমােট ৫৩৬.৩৬ কোটি টাকা এখনও পরিশােধ করা হয়নি। যাবতীয় প্রমাণপত্র কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে দাখিল করা হয়েছে। মহাত্মা গান্ধী এনরেগা কর্মসূচির অধীন এ পর্যন্ত ৪৩,৬১৬টি কর্মসূচি সম্পূর্ণ হয়েছে। দেশের অন্যান্য রাজ্য থেকে এ রাজ্যে রেকর্ড সংখ্যক কাজ সম্পন্ন হয়েছেবলে দাবি করেন পঞ্চায়েত মন্ত্রী নবকুমার দোলে। বিধানসভায় জাকির হােসেন শিকদারের নােটিশের জবাবে বক্তব্য রাখছিলেন পঞ্চায়েত মন্ত্রী। তিনি বলেন, সংবাদপত্রে প্রকাশিত ৪৪.৩১ লক্ষ জবকার্ডধারীর বিপরীতে মাত্র ৩৪৪৫ জন শ্রমিক কাজ পেয়েছে বলে দাবির কোনাে সারবত্তা নেই

No comments

Powered by Blogger.