Header Ads

‘কা’ ভারতের মুসলিমদের ওপর প্ৰভাব ফেলবে, উদ্বেগ প্ৰকাশ মাৰ্কিন রিপোৰ্টে

নয়া ঠাহর ওয়েব ডেস্কঃ মোদী সরকারের নতুন নীতি ‘কা’-এর প্ৰভাব ভারতে বসবাসকারী মুসলিম নাগরিকদের ওপর পড়বে। সম্প্ৰতি এই উদ্বেগ প্ৰকাশ করেছে মাৰ্কিন কংগ্ৰেসের থিঙ্কট্যাঙ্ক ‘কংগ্ৰেসনাল রিসাৰ্চ সাৰ্ভিস(সিআরএস)’-এর একটি রিপোৰ্টে। সিআরএস-এর এই রিপোৰ্ট তৈরি হয়েছে কংগ্ৰেস সদস্যদের সংখ্যাহরিষ্ঠ্য অংশের মতামতের ভিত্তিতে। 
 
ছবি, সৌঃ আন্তৰ্জাল
রিপোৰ্টে বলা হয়েছে- ভারত শুধু বিদেশি আগ্ৰাসনকারীদের হাতে লুন্ঠিত হয়েছে, এই ভাবেই দেশের ইতিহাসকে ব্যাখ্যা করতে চেয়েছেন হিন্দু জাতীয়তাবাদীরা। তার ফলে তাঁরা আধুনিক ভারতের দুই প্ৰতিষ্ঠাতা জওহরলাল নেহরু ও মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধীর ধৰ্মনিরপেক্ষতার ভাবাদৰ্শকে বাতিল করে দিয়েছেন। রিপোৰ্টে আরও উল্লেখ করা হয়েছে- বিশেষজ্ঞদের ধারণা, দেশের উত্তরোত্তর ঝিমিয়ে পড়া অৰ্থনীতি থেকে মানুষের নজর অন্য দিকে নিয়ে রাজনৈতিক ক্ষমতা ধরে রাখতে বিজেপি সরকার ধৰ্মকে হাতিয়ার করে আবেগের ওপর বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে।
প্ৰসঙ্গত, শুক্ৰবারও হিমাচলপ্ৰদেশের সিমলায় একটি জনসভায় প্ৰাক্তন প্ৰধানমন্ত্ৰী মনমোহন সিংয়ের বিরুদ্ধে ফের একবার তোপ দেগে স্বরাষ্ট্ৰমন্ত্ৰী অমিত শাহ বলেন- কংগ্ৰেসের আমলে পাকিস্তান থেকে ‘আলিয়া-মালিয়া-জামালিয়া’রা ভারতে এসেছে এবং ভারতীয় জওয়ানদের মেরে ফেলেছে। তবে মোদী সরকার তাতে দাঁড়ি টানতে সক্ষম হয়েছে। সিমলায় বিজেপি গত দু বছর ধরে ক্ষমতায় আছে। সেখানে একটি জনসভায় যোগ দিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্ৰমন্ত্ৰী অমিত শাহ।
রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে দেশে ধৰ্ম নিয়ে একাংশ নেতার কটূক্তি দেশের শান্তির পরিবেশকে নষ্ট করছে।  

No comments

Powered by Blogger.