Header Ads

রূপজ্যোতি কর্মি ব্লেডে হাত কেটে রাজ্যের জ্বলন্ত সমস্যার দাবী জানালেন





অমল গুপ্ত
আজ বিধানসভা এক অভাবনীয় ঘটনার সাক্ষী হয়ে থাকল। মরিয়নির কংগ্রেস বিধায়করূপজ্যোতি কুর্মি বিধানসভা চলার সময় প্রবেশ মুখে সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে নিজের হাত ব্লেড দিয়ে চিড়ে রক্ত দিয়ে লিখলেন, “অসমের জাতি মাটি ভেটি রক্ষা করা হবে কোনাে ভাবেই তা অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে ঠেলে দেওয়া হবে না। এছাড়াও তার দাবির মধ্যে নগাঁও, কাছাড় পেপার মিল, হাতিমারা চা বাগান, নামরূপ সার কারখানা প্রভৃতি পুনর্জীবনের দাবি জানিয়ে এক হুলস্থূল পরিস্থিতির সৃষ্টি করেন। হাতে রক্তাক্ত পােষ্টার নিয়ে বিধানসভার ফার্মিসিতে গিয়ে চিকিৎসা করান। ডাক্তাররা তার হাতে তিনটি সেলাই করে,ইঞ্জেকশন দিয়ে তাকে সুস্থ করে তােলেন। পদ্মহাজরিকা সহ বিজেপির বিধায়করা অধ্যক্ষ হিতেন্দ্রনাথ গােস্বামীর কাছে অভিযােগ করেন, বিধায়ক রূপজ্যোতি কুর্মি বিধানসভায় আত্মহত্যার চেষ্টা করে সরকারকে বিপদে ফেলতে চাইছেন। বিধানসভার সিকিউরিটি কোথায় গেল বলে বিধায়করা প্রশ্ন তােলেন।




অধ্যক্ষ হিতেন্দ্রনাথ গােস্বামী বলেন, এ এক সিরিয়াস ব্যাপার। এই জিনিস সহ্য করা হবে না। বিধানসভার মানমর্যাদা ধুলিসাৎ করা হচ্ছে। তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হােক। বিধানসভার কংগ্রেস পরিষদীয় নেতা দেবব্রত শইকিয়া বলেন, বিধানসভার বাইরের ঘটনা তাই তিনি এব্যাপারে দায়িত্ব নিতে পারবেন না। তবে বিধায়কের উচিত হয়নি এধরনের কাজ করা। অধ্যক্ষ বিধানসভার শেষে তার চেম্বারে দলপতি ও বিরােধী দলপতিদের উপস্থিতিতে বিধায়কের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেন। রূপজ্যোতি কুর্মি পরে তার এই ভুলের জন্য অনুশােচনা করেন এবং নিঃশর্তভাবে ক্ষমা চেয়ে নেন।

No comments

Powered by Blogger.