Header Ads

কাশ্মীরের ৩৭০ ধারা ও শ্যামাপ্রসাদ !!

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায়ঃ

কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা চালু রাখলে অদূর ভবিষ্যতে সমস্যা বাড়তে পারে এ কথা বারবার লোকসভার ভেতরে ও বাইরে জোর গলায় বলে গেছেন শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। উল্লেখ্য, সংবিধানের ৩৭০ ধারায় লেখা হয়--‘Temporary, Transitional and Special Provision of Article 370’। ভাগ্যিস সংবিধান প্রণেতা সাময়িক, পরিবর্তনমুখী ও বিশেষ ব্যবস্থা--এই কথাগুলির মধ্যে দিয়ে দূরদর্শিতার পরিচয় রেখেছিলেন ! সংবিধান বিশেষজ্ঞ দুর্গাদাস বসু কাশ্মীর প্রসঙ্গে লিখেছেন, ‘‘The State of Jammu and Kashmir holds a peculiar position under the constitution of India.’’


ভারতের অখন্ডতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষার্থে সংবিধানের বিশেষ অনুচ্ছেদ ৩৭০ ধারা বিলোপ ও পারমিট-রাজ বাতিলের দাবিতে ডঃ শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী কাশ্মীর অভিযান করেন। ১৯৫৩ সালের ১১ই মে পাঞ্জাবের উধমপুরে শেষ সভা করে কাশ্মীরে প্রবেশের পথে গ্রেফতার বরণ করেন। বন্দি অবস্থায় শেখ আব্দুল্লার কারাগারে ২৩শে জুন ১৯৫৩ সালে ডঃ মুখার্জীকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয় বলে দাবি। ডঃ মুখার্জীর সেবায় নিয়োজিত নার্স হয়তো যথার্থই বলেছিলেন, ‘‘One lion (ভারত কেশরী) has been killed by Abdullah.’’। ডঃ মুখার্জী স্বাধীন ভারতে বলিদানের মধ্যে দিয়ে ভারতের অখন্ডতার পক্ষে সওয়াল করে গেছেন।
ডঃ মুখার্জীর মরদেহ নিয়ে কলকাতার শেষযাত্রার মিছিলে মানুষের ঢল নামে। শিয়রে ছিলেন অটলবিহারী বাজপেয়ী। ডঃ মুখার্জীর সুযোগ্য শিষ্য ও সচিব। কলকাতার সঙ্গে সারা ভারতবর্ষের মানুষ সেদিন নেহেরুর চক্রান্তের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছিল। ধিক্কারে ফেটে পড়েছিল সারা দেশ। আশুতোষ মুখোপাধ্যায়ের স্ত্রী ও শ্যামাপ্রসাদের মা যোগমায়াদেবী এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও চিকিৎসক বিধানচন্দ্র রায় পূর্ণাঙ্গ তদন্তের দাবি তোলেন। রাজনীতির অঙ্গনে এক ব্যতিক্রমী ব্যক্তিত্বের জীবন অকালে কেড়ে নেওয়া হল, অন্যের রাজনৈতিক উচ্চাকাঙ্খার কাছে একনীতি পরায়ণ, আদর্শবান, উচ্চশিক্ষিত রাজনীতিবিদ বলিপ্রদত্ত হলেন স্বাধীন ভারতবর্ষের গণতন্ত্রের পরিসরের মধ্যেই। এক দেশ, এক বিধান, এক নিশানার প্রবক্তা নিজের জীবন দিয়ে নিজের স্বপ্ন রক্ষা করার চেষ্টা করেছেন। তিনি জীবিত থাকলে ভারতীয় রাজনীতি হয়তো অন্যখাতে প্রবাহিত হত।
লোকসভার প্রাক্তন অধ্যক্ষ সোমনাথ চট্টোপাধ্যায় লন্ডনে ব্যারিস্টারি পড়বার সময় ডঃ মুখার্জীর মৃত্যুসংবাদ পান। ব্রিটেনের কাগজে ‘Hindu Leader Dead’ শিরোনামে খবর প্রকাশিত হয়। পরবর্তীকালে সোমনাথ চট্টোপাধ্যায় এই অনন্য ব্যক্তিত্বের বহুমুখী প্রতিভা প্রসঙ্গে লেখেন, ‘‘He was a great Indian, great patriot, great educationist, great orator and a great human being.’’ (Dr. Syama Prasad Mookerjee- A contemporary study, NOIDA NEWS PVT.LTD, Delhi, 2000, P-286)
ডঃ শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী ভারতীয় রাজনীতিতে যে নিজস্ব চিন্তাধারার প্রকাশ ঘটিয়েছিলেন তার প্রভাব আজও রাজনীতির জটিল আবর্তে সমানভাবে প্রাসঙ্গিক থেকে যাচ্ছে। আর এখানেই ভারত কেশরী ডঃ শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জীর আত্ম বলিদানের সার্থকতা।
আত্ম বলিদানের সময় ২০,০০০ টাকা ব্যক্তিগত দেনা আর বিমা কোম্পানির কাছ থেকে ২০,০০০ টাকার প্রাপ্তিসহ জীবনের স্থিতিপত্র (Balance Sheet) মিলিয়ে হাতে কয়েকটি পেন উদ্বৃত্ত রেখে গিয়েছিলেন। আজকের অধিকাংশ রাজনীতিব্যবসায়ীদের কাছে সত্যই গৌরবের এবং উল্লেখযোগ্য বিষয় নয় !

No comments

Powered by Blogger.