Header Ads

দু'দিনের সফরে গুয়াহাটি আসছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে, নেতাজির স্মৃতি সৌধের সঙ্গে পরিচয় করাতে যাবেন কোহিমা, সঙ্গে থাকছেন প্রধানমন্ত্রী মোদি

ছবি-সৌজন্য ইন্টারনেট।
অমল গুপ্ত, গুয়াহাটি : পৃথিবীর সমৃদ্ধিশালী রাষ্ট্র জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো  আবে গুয়াহাটি আসছেন, সঙ্গে থাকছেন আমাদের  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। যা এক বিরাট খবর। প্রধানমন্ত্রী মোদি জাপানের প্রধানমন্ত্রীকে নেতাজির সঙ্গে জাপানের সুসম্পর্কের নানা স্মরণীয় মুহূর্তের সঙ্গে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেবার জন্যে নাগাল্যান্ডের রাজধানী কোহিমা নিয়ে  যাবেন বলে জানা গেছে। সেই মাটিতে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু ভারতের স্বাধীনতার প্রথম পতাকা উত্তোলন করে ছিলেন। 
নানা প্রতিকূলতার জন্য নেতাজির স্বপ্ন সফল হয়নি। এই ইম্ফলে আজাদ হিন্দ বাহিনীর শহীদদের সমাধিস্থল আছে।সেখানে জাপানের প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে গিয়ে আমাদের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দুই দেশের পারস্পরিক সম্পর্ক কে আরও সুদৃঢ় করার চেষ্টা করবেন। জাপান ইতিমধ্যে অসম তথা উত্তরপুর্বকে সার্বিকভাবে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। অসমের শিল্পমন্ত্রী চন্দ্র মোহন পাটোয়ারী জানিয়েছেন, জাপানি ভাষা শিখলে জাপান সরকার অসমে বহু শিল্প গড়ে তুলে জাপানি ভাষা জানা যুবকদের চাকরি দেবে। প্রধানমন্ত্রী মোদি সর্বপ্রথম  নেতাজির আজাদ হিন্দ বাহিনীর প্রাক্তন সেনানীদের  সম্মান ও মর্যাদা দিয়েছেন। নেতাজির জন্মদিন ২৩ জানুয়ারি, তার প্রাককালে নেতাজিকে যোগ্য সম্মান  দিয়ে নেতাজিপ্রেমী বাঙলিদের মন ছুঁতে চাইছেন প্রধানমন্ত্রী।অসমও জাপানকে উপযুক্ত সম্মান দিয়ে প্রধানমন্ত্রী সিনজো আবের মন ছুঁতে চাইছে। জাপানের প্রধানমন্ত্রীকে সম্মান জানাতে গুয়াহাটি মহানগরকে ঢালাও ভাবে সাজানো হচ্ছে। পথঘাট সংস্কার হচ্ছে। রাতারাতি গুয়াহাটি বর্ণময়, উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে। 
আগামী ১৫ ও ১৫ ডিসেম্বর দু'দিন দুই প্রধানমন্ত্রী গুয়াহাটিটে কাটাবেন। যাও ভাবা যায় না। দুটি ফাইব স্টার হোটেল তাজ ভিভান্ট এবং রেডিশন ব্লুকে সাজানো হচ্ছে। ব্রহ্মপুত্র নদের দুইপার সাজানো হচ্ছে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী জাপানের প্রধানমন্ত্রী আবেকে সুসজ্জিত জাহাজে নিয়ে ব্রহ্মপুত্র নদের প্রাকৃতিক শোভা  উপভোগ করবেন। আরও অবাক কথা ব্রিটিশ আমলের গুয়াহাটি ডি সি বাংলোকে নতুন ভাবে সংস্কার করে সাজানো হয়েছে। বাংলোর পিছনে  ব্রহ্মপুত্রর জল ছলছল করছে, সুন্দর মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশ।সামনে বিরাট পুকুর শালুক পদ্মর শোভা। দুই প্রধানমন্ত্রী এই বাংলোতে এক চা চক্রে মিলিত হবেন, দুইজনকেই মুগ্ধ করবে তা নিশ্চিত। 
এদিকে, রাজ্যে ক্যাব বিরোধী আন্দোলন তীব্র হচ্ছে,  সোমবার সংসদে ক্যাব গৃহীত হতে পারে। বুধবার রাজ্য  সভাতে উঠবে। এই অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতিতে দুই প্রধানমন্ত্রী গুয়াহাটি  উপস্থিতি থাকবেন। নিরাপত্তা নিয়ে সরকার উদ্বিগ্ন। নিরাপত্তার ব্যাপক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। গুয়াহাটির গোপীনাথ বড়দৌলাই বিমান বন্দর থেকে    মহানগর পর্যন্ত সাজ সাজ রব। গুয়াহাটিবাসী দুই প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত হচ্ছে।

No comments

Powered by Blogger.