Header Ads

বিশ্ব উষ্ণায়নের জের, মাউন্ট এভারেস্ট থেকে বেরিয়ে আসছে একের পর এক নিখোঁজ পৰ্বতারোহীর মৃতদেহ

নয়া ঠাহর ওয়েব ডেস্কঃ বিশ্ব উষ্ণায়নের ফলে বেশ কিছু বছর ধরে বাড়ছে হিমালয়ের তাপমাত্ৰাও। ফলত গলতে শুরু করেছে হিমালয়ের বরফ। পৃথিবীর সৰ্বোচ্চ পৰ্বতশৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্টের বিভিন্ন জায়গা থেকে বেরিয়ে এসেছে একাধিক পৰ্বতারোহীর মৃতদেহ।

 ছবি, সৌঃ আন্তৰ্জাল
বিষয়টি নিয়ে সমস্যায় পড়েছেন নেপালের পৰ্বাতারোহী সংস্থার কৰ্মকৰ্তারা। একাংশের মতে মৃতদেহগুলি নিচে নামিয়ে আনা উচিত। আবার একাংশের মতে পৰ্বতারোহীর মৃত্যু হলে হিমালয়ের বুকে সমাধিস্থ থাকাই নিজের পছন্দের বলে জানিয়েছেন। পৰ্বতের প্ৰতি ভালবাসা থেকেই এই রকম ইচ্ছে তাদের। সেক্ষেত্ৰে কোনও পৰ্বতারোহীকে নিচে নামিয়ে আনা তাদের জন্য অসম্মানজনক। তাই মৃতদেহগুলি নিচে নামিয়ে আনা উচিত কিনা তা নিয়ে শুরু হয়েছে নতুন বিতৰ্ক।


প্ৰসঙ্গত, ১৯২২ সাল থেকে এখনও পৰ্যন্ত প্ৰায় ৪ হাজার ৮০০ পৰ্বতারোহী জয় করেছেন পৃথিবীর সৰ্বোচ্চ পৰ্বতশৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্ট। এভারেস্টে ওঠার পথে সবচেয়ে বিপজ্জনক জায়গা হচ্ছে খুম্ভু হিমবাহ। গত ১০০ বছরে বেশিরভাগ পৰ্বতোরোহী এই হিমবাহের আশেপাশেই মারা গিয়েছেন। অনেকেই শৃঙ্গ জয় করে ফেরার পথে প্ৰাণ হারিয়েছেন। অনেকে পৰ্বতে ওঠার পথে দুৰ্ঘটনার শিকার হয়ে মারা গিয়েছেন। এখনও পৰ্যন্ত সরকারিভাবে ৩০০ জন পৰ্বতারোহী এভারেস্ট জয় করতে গিয়ে মারা গিয়েছেন। তাদের মধ্যে অনেকেই এভারেস্টেই সমাধিস্থ হয়েছেন। বরফের নিচে চাপা পড়ে যাওয়ায় খুঁজে পাওয়া যায়নি পৰ্বতারোহীদের। এবারে জলবায়ু পরিবৰ্তন এবং বিশ্ব উষ্ণায়নের ফলে দ্ৰুত গলছে পৰ্বতের বরফ। আর সে কারণেই বেরিয়ে আসছে একের পর এক মৃতদেহ। 

No comments

Powered by Blogger.