Header Ads

হায়দরাবাদ ধর্ষণ কাণ্ডে দেশজুড়ে প্রতিবাদ

ছবি-সৌজন্য ইন্টারনেট।
নয়া ঠাহর প্রতিবেদন : ২০১২ সালে দিল্লিতে নির্ভয়া কাণ্ডের পর আজও অপরাধীরা শাস্তি পেল না। সেই ধর্ষণ কাণ্ডের প্রতিবাদে সারা দেশ পথে নেমেছিল। এবার হায়দরাবাদের তরুণী ডাক্তারকে ধর্ষণ করে জ্বালিয়ে দেওয়া হলো। সে বারের মতো এবারও দোষীদের গ্রেফতার করা হয়েছে। এই বীভৎস ঘটনার প্রতিবাদে দেশবাসী পথে নেমেছে। পুলিশ যথারীতি নানা অজুহাত দেখিয়ে কয়েকজনকে গ্রেফতার  করেছে। কলকাতায় ধর্ষণের ঘটনা ঘটলে অপরাধীদের মুখ দেখে ছেড়ে দেওয়া হয়। হায়দরাবাদের ঘটনায় অপরাধীরা শাস্তি পাবে কি?
সারা  দেশে প্রতিদিন, প্রতি ঘন্টায় এমন কি প্রতি মিনিটে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে চলেছে। অসমও পিছনে নেই। ২০১৬ সাল থেকে চলতি বছরের অক্টোবর পর্যন্ত ৬৫২৮টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটনা ঘটেছে। গুয়াহাটি শহরে এই সময়ের মধ্যে ২৪৮টি  ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে, সরকারি তথ্যে একথা জানা গেছে। এই সময়ে অসমে যৌতুক জনিত বধূ নির্যাতনের ঘটনার সংখ্য ৩০৮২০টি। দেশে যারা মহিলাকে সুরক্ষা দিতে আইন প্রণয়ন করবে সেই সংসদের মধ্যে ২৩৩ জনের বিরুদ্ধে ফৌজদারি অপরাধের রেকর্ড আছে। এডিআরএর এক প্রতিবেদনে একথা বলা হয়েছে। 
লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লা, উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু হায়দরাবাদের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন,  দেশের মানুষের মানসিকতার পরিবর্তন দরকার। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজনাথ সিং এই ধরনের ঘটনা প্রতিরোধে কঠোর আইন করা হবে ঘোষণা করেছেন। এই দেশে প্রতিবাদীদেরই গ্রেফতার করা হয়। অনু দুবে নামে এক কিশোরী হাতে এক প্ল্যাকার্ড নিয়ে লোকসভার সামনে একা বসে হায়দরাবাদের ঘটনায় নিন্দা করে ছিলেন। তাকে থানায় নিয়ে গিয়ে মহিলা পুলিশ নির্দয়ভাবে মারধর করে মুচ লেখা নিয়ে ছেড়ে দেয়। অনুর পথে গিয়ে পশ্চিমবঙ্গের ঝাড়গ্রামের শিশু ছাত্রী অন্বেষা প্রামানিক এক প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে প্রতিবাদ করেন। 
তৃণমূলের রাজ্য পশ্চিমবঙ্গে মহিলাদের যেমন নিরাপত্তা নেই তেমনি দেশের রাজধানী দিল্লিতেও মহিলাদের নিরাপত্তা নেই। ঘটনার পর দুদিন আন্দোলন, মোমবাতি মিছিল, নেতাদের নানা আশ্বাস বাণীতে দেশ ভরে যায়। তারপর সব চুপ।বিচারের বাণী নীরবে নৃভিতে কাঁদে।

No comments

Powered by Blogger.