Header Ads

গ্রন্থ হল জ্ঞান ,প্রেরণা ও জীবন পরিবর্তন করার এক উত্তম উৎস: ভেঙ্কাইয়া নাইডু




দেবযানী পাটিকর গুয়াহাটি
।অসম অভিযাত্রিক প্রতিষ্ঠান ময়দানে  শুক্রবার থেকে  শুরু হয়েছে ২১ সংখ্যক উত্তর-পূর্ব গ্রন্থমেলা,। সদৌ অসম পুঁথি প্রকাশক ও বিক্রেতা সংস্থার উদ্যোগে আয়োজিত এই গ্রন্থ মেলাতে প্রায়।৭৬টি প্রকাশক গোষ্ঠী অংশ গ্রহন করেছে।প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে গ্রন্থমেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন দেশের উপরাষ্ট্রপতি এম ভেঙ্কাইয়া নাইডু। গ্রন্থমেলা উদ্বোধন নিজের ভাষণে নাইডু রাজ্যের প্রতিটি গ্রামে একটি করে পুস্তকালয় স্থাপনের কথা বলেন ।বই পড়া বিষয়ে উল্লেখ করে উপরাষ্ট্রপতি বলেন যে বই পড়া অভ্যেস মানুষের মন আর মস্তিষ্কের দরজাকে উন্মুক্ত করে দেয় । গ্রন্থই মানুষের বিশ্লেষণ ক্ষমতা তথা সৃজনশীল মানসিকতা কি উন্মেষ সাধন করে বলে উল্লেখ করেন উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু। গ্রন্থ হল জ্ঞান,প্রেরণা ও  জীবনকে পরিবর্তন করার এক উত্তম উৎস। যতই আমরা বই পড়ি ততই আমরা পৃথিবীতে বুঝতে  সক্ষম হতে পারি ।মানুষের জীবনে গ্রন্থের এক বৃহৎ অবদান  রয়েছে বলেই তিনি বলেন। 
ভারতবর্ষের সাহিত্য এবং গ্রন্থের ইতিহাস পাঁচ হাজার বছরের পুরনো সভ্যতা বলে  উল্লেখ করে উপরাষ্ট্রপতি নাইডু বলেন যে বর্তমান সময়ে ভালো বই এর প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। তিনি আরো বলেন যে বর্তমান প্রজন্মের মধ্যে বই পড়ার পরিবর্তে অনলাইন তথ্য দেখাটা  প্রবণতা বৃদ্ধি পেয়েছে এটা চিন্তার বিষয়। তবে তিনি আরো বলেন যে যুব প্রজন্মের এই অভ্যাসের সাথে মোকাবেলা করতে হলে ছোটবেলা থেকেই বাচ্চাদের বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে লাগবে ।এই অনুষ্ঠানে আসামের রাজ্যপাল জগদীশ মুখী বলেন যে উত্তর-পূর্ব গ্রন্থমেলা সমগ্র অঞ্চলের বৃহৎ গ্রন্থমেলা হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছে।এর সাথে মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল  অভিভাবকনদে তাদের সন্তানদের ছোটবেলা থেকে বই পড়ার অভ্যেস বৃদ্ধি করার কথা বলেন । নবীন প্রজন্মের মধ্যে জিজ্ঞাসার  পরিসর বাড়ানোর জন্য বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তোলার আহ্বান জানান তিনি। অনুষ্ঠাানে শিক্ষামন্ত্রী  শিক্ষা মন্ত্রী সিদ্ধার্থ ভট্টাচার্য, এটিডিসি চেয়ারম্যান জয়ন্ত মল্ল বড়ুয়া, অনেক অনেক গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিিত ছিলেন

No comments

Powered by Blogger.