Header Ads

বর্ণাঢ্য কার্যক্রমের দ্বারা বীর লাচিত দিবস পালন



দেবযানী পাটিকর।
লাচিতের আদর্শ  ছাত্রছাত্রীদের  অনুপ্রেরণা  ,উদ্দীপনা, দৃঢ়তা ও সাহস প্রদান করবে ও তাদের নিজেদের লক্ষ্যে এগিয়ে যেতে প্রেরনা দেবে: মুখ্যমন্ত্রী
 আসামের ইতিহাসে এক দুর্যোগপূর্ণ সময়ে এক যুগান্তকারী পরিবর্তন আনতে সক্ষম হয়েছিলেন লাচিত বরফুকন তিনি ছিলেন এক অপরাজেয় ব্যক্তিত্ব ও সংগ্রামের প্রতীক এ মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়ালের। বেসরকারী সংস্থার রেইডের উদ্যোগে রবিবার নগরের জলুকবারী স্থিত লাচিত উদ্যানে বিভিন্ন কার্যক্রমের দ্বারা পালন করা হয় লাচিত দিবস।এই  অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল । এদিন তিনি সকালবেলা সর্বপ্রথম এখানেই।বীর লাচিতের প্রতিমূর্তিতে পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ করেন । অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে তিনি আরো বলেন যে বীর লাচিতের দেশপ্রেমের দৃষ্টান্ত ও আদর্শের দ্বারা আমাদের সমাজকে শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে লাগবে। তিনি ছাত্র ছাত্রীদের লাচিতের বিষয়ে অধ্যায়ন করার কথা বলে বলেন যে লাচিতের জীবন ও আদর্শ নবীন প্রজন্মের ছাত্রছাত্রীদের  অনুপ্রেরণা , উৎসাহ-উদ্দীপনা , দৃডতা ও সাহস প্রদান ,করবে যা তাদের জীবনে নিজের লক্ষ্যে এগিয়ে যেতে প্রেরণা দেবে। এ অনুষ্ঠানের সঙ্গে সাথে সংগতি রেখে এক রক্তদান শিবির আয়োজন করা হয় যেখানে অনেক লোক রক্তদান করেন ।উল্লেখ্য যে লাচিত বরফুকনের পরাক্রম আর শরাইঘাটের যুদ্ধে অসমীয়া সেনার বিজয়কে স্মরণ করার জন্য প্রতিবছর লাচিতের জন্ম দিবসের দিনটি অর্থাৎ ২৪ নভেম্বর দিনটি  লাচিত দিবস হিসেবে পালন করা হয়। 
                                    

এদিনের অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক পরিক্রমা মন্ত্রী নবোদলে,রাজ্যিক  স্বাস্থ্যমন্ত্রী পীযূষ হাজারিকা ,প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বিজয়া চক্রবর্তী অসম পর্যটন উন্নয়ন নিগমের অধক্ষ্য জয়ন্ত মল্ল বড়ুয়ার সাথে অনেক গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। ওদিকে নগরের ফাঁসি বাজারের ঘটে কেন্দ্রীয় ভাবে পালন করা হয় লাচিত দিবস ।অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল, শিক্ষা মন্ত্রী সিদ্ধার্থ ভট্টাচার্য ,সাংস্কৃতিক পরিক্রমা মন্ত্রী নব দলে,সংসদ কুইন ওঝা,র সাথে অনেক গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। এদিনের অনুষ্ঠানে লাচিত কে শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ ।






অনুষ্ঠানে লাচিতের জীবন ভিত্তিক আলেখ্য প্রস্তুত করা হয়। ওদিকে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের উচ্চ শিক্ষার প্রাণকেন্দ্র গৌহাটি বিশ্ববিদ্যালয় পরিসরে উদ্বোধন করা হয় অসমীয়া জাতি শৌর্য-বীর্যের প্রতীক লাচিত বরফুকনের পূর্ণ মূর্তি। ১৯৬১ সালে স্থাপিত লাচিত বরফুকন ছাত্রাবাসের সামনেই ১৮ ফুট উচ্চতার এই মূর্তিটি উদ্বোধন করে  বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ডঃ প্রদীপ জ্যোতি সন্দিকৈ । উল্লেখ্য যে এই ছাত্রাবাসের সমস্ত প্রাক্তন আবাসিকরা নিজেদের অনুদান দিয়ে আহোম সেনাপতির বীর লাচিত বরফুকনের  এই মূর্তিটি নির্মাণ করেছে ।প্রায় ।১৮ ফুট উঁচু আহোম সেনাপতি মহাবীর লাচিত বরফুকনের এই মূর্তিটি তৈরি করেছেন শিল্পী বীরেন সিংহ।

No comments

Powered by Blogger.