Header Ads

আড়াআড়ি বিভাজন শিবসেনায় !! সমীকরণের মাঝেই তৈরি হচ্ছে অন্য সমীকরণ


বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায়

বিজেপির সঙ্গে সরকার গঠন প্রসঙ্গে 
আড়াআড়ি বিভাজন শিবসেনায় !!
সমীকরণের মাঝেই তৈরি হচ্ছে অন্য সমীকরণ। মাহারাষ্ট্রে রাজনীতির এখন এটাই চিত্র। মুখ্যমন্ত্রিত্বের কুর্সি নিয়ে জোটসঙ্গী বিজেপির সঙ্গে বিরাগভাজন সেনা যখন যোগাযোগ রাখছে এনসিপি ও কংগ্রেসের সঙ্গে, ঠিক সেই সময়ই ২৫ জন বিধায়ক ফড়নবীশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন বলে জানা গিয়েছে। পরিস্থিতি এমন গিয়ে ঠেকেছে যে ভাঙন দেখা দিয়েছে সেনার অন্দরেই।
সূত্রের খবর সেনার শীর্ষ নেতারা মুখ্যমন্ত্রিত্বের দাবিতে অনড় থাকলেও দলের প্রায় ২৫ জন বিধায়ক বর্তমান অচলাবস্থা কাটিয়ে বিজেপির সঙ্গে দ্রুত সরকার গঠনের বিষয়ে আগ্রহী। এদিকে বিজেপিও জানিয়ে দিয়েছে যে সেনার সঙ্গে বৈঠকে বসতে তারা প্রস্তুত তবে মুখ্যমন্ত্রিত্ব ছাড়া যে কোনও বিষয়ে আলোচনা করবে তারা। বিজেপির সাফ বক্তব্য, আগামী পাঁচ বছর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হবে তাদেরই দলের।
কয়েকদিন আগেই সেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত দাবি করেছিলেন শিবসেনা ১৭০ জন বিধায়কের সমর্থন তাঁদের সঙ্গে রয়েছে। বিজেপি মুখ্যমন্ত্রিত্ব ত্যাগ করতে অনিচ্ছুক হওয়ায় বিকল্প পথ খুঁজতে শুরু করেছিল শিবসেনা। সঞ্জয় রাউত এই বিষয়ে কথা বলতে বেশ কয়েকবার দেখা করেছেন এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ারের সঙ্গে। তবে সেই পথেও সমাধান সূত্র পায়নি সেনা শিবির। বুধবার শিবসেনার সঙ্গে জোটের সম্ভাবনা সপাটে খারিজ করেন এনসিপি সুপ্রিমো শরদ পাওয়ার।
এর আগে শিবসেনা এনসিপির সমর্থন চাইলে বেশ কিছু প্রস্তাব দিয়েছিল শরদ পাওয়াররা। তাঁরা ফিফটি ফিফটি ফরমুলায় শিএদিকে নির্দল বিধায়ক রবি রানা বুধবার দাবি করেন, শিবসেনার ২৫ জন বিধায়ক নাকি ফড়নবীশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। তাঁরা বিজেপির নেতৃত্বেই মহারাষ্ট্রে সরকার গড়তে চায়। সেকারণেই নির্দল বিধায়ক রবি রানা এদিন দাবি করেছেন মহারাষ্ট্রে ফের ফড়নবীশ সরকারই আসছে। তিনি নিজেও সরকার গঠনের জন্য ফড়নবীশেই আস্থা দেখিয়েছেন। যদিও এই বিষয়ে সেনার দাবি, বিজেপি টাকার লোভ দেখিয়ে তাদের দলের বিধায়কদের ভাঙানোর চেষ্টা করছে। এই অভিযোগ এনে আজ দলীয় মুখপত্র সামনাতে একটি প্রতিবেদনও ছাপে শিবসেনা।
এদিকে ৯ নভেম্বরের মধ্যে মহারাষ্ট্রে কোনও রাজনৈতিক দল সরকার গঠনের দাবি না জানালে রাজ্যপাল নিজে আলোচনায় বসবেন বলে জানিয়েছেন। কারণ এদিনই শেষ হয়ে যাচ্ছে মহারাষ্ট্রের বিধানসভার কার্যকালের মেয়াদ। কাজেই মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন নিয়ে চরম উত্তেজনা পূর্ণ পরিস্থিতি তৈরি হয়ে রয়েছে। বিজেপি উপর ক্রমশ চাপ বাড়াচ্ছে শিবসেনা। এদিকে শিবসেনার অন্দরেই ভাঙন তৈরি করছে বিজেপি। সূত্রের খবর শপথ গ্রহন অনুষ্ঠানের জন্য ইতিমধ্যেই বিজেপি ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম বুক করে ফেলেছে।

No comments

Powered by Blogger.