Header Ads

বাংলাদেশে হোলি আর্টিজানান রেস্তারাঁ হামলায় জড়িত ৭ জনের ফাঁসির আদেশ, একজন খালাস

নয়া ঠাহর ওয়েব ডেস্ক -- 27 নভেম্বর

তিন বছর আগে বাংলাদেশের  ঢাকার গুলশানের হোলি আর্টিজেন রেস্তারাঁয় জঙ্গি হামলার ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ফাঁসির রায় শোনালেন ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল ।
ছবি, সৌঃ ইন্টারনেট
২০১৬ সালের ১ জুলাই হোলি আর্টিজেন রেস্তারাঁয় ভয়বাহ হামলা চালিয়েছিল নব্য জেএমবি জঙ্গিরা । এই ঘটনায় চমকে উঠেছিল গোটা  বাংলাদেশ । গুলশানের এই রেস্তারাঁয় হামলা চালিয়ে বহু মানুষকে আটকে রেখেছিল জঙ্গিরা । জঙ্গিদের হামলায় মোট ২০ জন নিহত হয়েছিলেন। নিহতদের বেশিরভাগই বিদেশি নাগরিক ছিলেন । নিহত বিদেশিদের মধ্যে ছিলেন ৯ জন ইতালীয়, ৭ জন জাপানি, ১ জন ভারতীয় ও তিনজন বাংলাদেশি নাগরিক ।

হামলার পরদিন সকালে সেনা  কম্যান্ডোদের অভিযানে নিহত হয়েছিল পাঁচ জঙ্গি । অভিযানের পর আটক করা হয়েছিল আটজনকে । আটক  আটজনের মধ্যে সাত জনকে ফাঁসির সাজা শোনায় আদালত । ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত জঙ্গিরা হল রাকিবুল ইসলাম রিগ্যান ওরফে রাফিউল ইসলাম, জাহাঙ্গির আলম ওরফে রাজীব গান্ধী, মোহাম্মদ আসলাম হোসেন ওরফে রাশ , আবদুস সবুর খান ওরফে সোহেল মাহফুজ, মোহাম্মদ হাদিসুর রহমান সাগর ওরফে সাগর, মামুনুর রশিদ রিপন ও শরিফুল ইসলাম খালেদ । খালাস পেয়ে যায় মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান। এই রায় ঘোষণার আগে আদালত চত্বরে ব্যাপক সুরক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছিল ।

হোলি আর্টিজেনে নৃশংসতার নজির রেখেছিল জঙ্গিরা । গুলি চালিয়ে নিরীহদের হত্যার পর মৃতদেহগুলি কুপিয়েছিল জঙ্গিরা । রক্ত রেস্তারাঁর বাইরে  লন অবধি গড়িয়েছিল।

আজ সাজা ঘোষণার পরও কোনও জঙ্গির মধ্যেই অনুশোচনার লেশমাত্র দেখা যায়নি । জঙ্গি রকিবুল ইসলামের মাথায় জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের পতাকার প্রতীক সমেত কালো টুপি ছিল । কালো কাপড়ে তৈরি টুপি পড়া ছিল আরো এক জঙ্গি জাহাঙ্গির আলমের মাথায় । নব্য জেএমবি জঙ্গিদের আদালত থেকে ফের কারাগারে নেওয়ার সময় প্রিজনভ্যানের ভেতরে নিজেদের কর্মকাণ্ডের সপক্ষে স্লোগানও দেয়।
জঙ্গিদের কালো টুপি পড়া নিয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম জানিয়েছেন, তারাও ছবিতে টুপি দেখে বিস্মিত হয়েছেন। জঙ্গিদের কারাগার থেকে আনার সময় তল্লাশি করে দেখা হয় । কিন্তু এ ধরনের টুপি তাদের কাছে কী করে গেল তা গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করা হবে ।

No comments

Powered by Blogger.