Header Ads

আদালতের সিদ্ধান্তকে মানছে না সুন্নি বোর্ড, রামলালার পক্ষে আসা সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানাবে মুসলিম পক্ষ !!


বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায়
৪৯০ বছর ধরে অযোধ্যা নিয়ে বিতর্ক চলেই এসেছে। আর এত বছর পর বহু প্রতীক্ষিত মামলার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাল দেশের সর্বোচ্চ আদালতের পাঁচ সদস্যের বিচারক বেঞ্চ এবং তা-ও অভূতপূর্বভাবে সর্বসম্মতিক্রমে ! সুপ্রিম কোর্ট অযোধ্যা মামলায় তাদের সিদ্ধান্ত শোনানোর সময় জানয়েছে,  ASI প্রমাণ করতে পারেনি যে, সেখানে হিন্দু মন্দির-ই ছিল পাশাপাশি শুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের দাবিও খারিজ করে দিয়ে আদালত জানিয়েছে বাবরি মসজিদের নীচে যা পাওয়া গেছিল সেটা কোনভাবেই ইসলামিক ছিল না ! সুপ্রিম কোর্টের কথা অনুযায়ী, বাবরি মসজিদের নিচে খননে যা পাওয়া গেছিল, সেটা অনেক বড় স্থাপত্য ছিল আর সেটি আদৌ ইসলামিক ছিল না।

সুপ্রিম কোর্ট জানায়, ১৮৫৬-৫৭ সালের আগে বিতর্কিত জমিতে নিয়মত নামাজ পড়ারও কোন প্রমাণ মুসলিম পক্ষ দিতে পারে নি।
কিন্তু ১৮৫৬ সালের আগেও হিন্দুরা যে ওখানে পুজো করত তার প্রমাণ রয়েছে। বাধা আসার পর হিন্দুরা বাইরে পূজা করতে বাধ্য হয়। ১৯৩৪ সালের দাঙ্গার পর মুসলিমদেরে আর দখল ছিলনা ওখানে। পুরাতত্ত্ববিদেরও বহু প্রমাণ হিন্দুদের পক্ষে যাচ্ছে। তবু শুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে বৈকল্পিক জমি দেওয়ার নির্দেশ সুপ্রিম কোর্ট দিয়েছে সম্প্রীতি রক্ষার কারণেই। বিতর্কিত জমি যে রাম লালার তা-ও জানিয়ে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট ।
সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী তথা মুসলিম পক্ষের আইনজীবী Zafaryab Jilani জানিয়েছেন তাঁরা এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারছেন না। ভবিষ্যতে সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত নিয়ে তাঁরা আবার আদালতের দরজায় কড়া নাড়তে পারেন !

No comments

Powered by Blogger.