Header Ads

সুব্রতর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে মোদীর স্তুতিতে রাজ্যপাল ধনকড়

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : তিনি যে বিজেপির প্রতিনিধি হয়ে রাজ্যে রয়েছেন এ অভিযোগ অনেকদিন আগেই শাসক দল করেছে। প্রকাশ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর স্তুতি করে সেই অভিযোগে কার্যত সিলমোহর দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যেই ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তিনি।
কলকাতায় চিকি‌ৎসকদের সম্মেলনে যোগ দিতে গিয়ে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় সুব্রত মুখোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে দাবি করেছেন যা মন্ত্রী বলেছেন সেটা একেবারেই মিথ্যে। প্রকৃত সত্য যাচাই করে কথা বলা উচিত। রাজ্যপালের নিরাপত্তায় কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন নিয়ে কড়া সমালোচনা করেছিলেন মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। তিনি অভিযোগ করেিছলেন এর আগে কখনও কোনও রাজ্যপালের নিরাপত্তায় কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন হয়নি। রাজ্যপাল নিজেই সাংবিধানিক প্রধান, তিনি চাইলেই সবরকম নিরাপত্তা পেতে পারেন। তার জন্য দিল্লিতে গিয়ে বিশেষ নিরাপত্তা চাওয়ার কোনও অর্থই হয় না। 
সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের এই মন্তব্যের পরেই যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের কোর্ট মিটিংয়ে গিয়ে রাজ্যে মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন রাজ্যপাল জগদীর ধনকড়। তাঁর নিরাপত্তা নিয়ে না জেনেই মন্তব্য করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছিলেন। যদিও রাজ্য সরকার রাজ্যপালের নিরাপত্তায় কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনকে ভাল চোখে নেয়নি। প্রকাশ্যে রাজ্য সরকারের সমালোচনা করায় রাজ্যপালের উপর হামলা হতে পারে এই আশঙ্কায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক তাঁর নিরাপত্তায় চার থেকে পাঁচজন আধাসেনা মোতায়েন করে।
ওদিওক সুব্রত মুখোপাধ্যায়কে নিয়ে রাজ্যপালের কটাক্ষের 
পাল্টা জবাব দিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। দক্ষিণ ২৪ পরগনায় একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে পার্থ বলেন রাজ্যপালের সব কথার উত্তর দেওয়ার সময় নেই রাজ্যের মন্ত্রীদের। তাঁরা সবসময় কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। মুখ্যমন্ত্রীর সৈনিক তাঁরা।
গত কয়েকদিন ধরেই রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সঙ্গে নানা বিষয়ে মত পার্থক্য তৈরি হয়েছে রাজ্য সরকারের। সম্প্রতি রাজ্যপালের নিরাপত্তায় কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন নিয়ে সমালোচনা শুরু করেন রাজ্যের মন্ত্রীরা। পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় একে নজির বিহিন ঘটনা বলেই দাবি করেছিলেন। তিনি অভিযোগ করেছিলেন এর আগে কখনও কোনও রাজ্যপালের নিরাপত্তায় কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন হয়নি। তার পাল্টা জবাবে রবিবার কলকাতায় একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে রাজ্যপাল বলেন, প্রকৃত সত্য যাচাই করে কথা বলছেন না রাজ্যর মন্ত্রীরা। সরাসরি এই নিয়ে সুব্রত মুখোপাধ্যায়কে আক্রমণ করেছেন তিনি। রাজ্যপালের অভিযোগ, সিদ্ধার্থশঙ্কর রায়ের আমলের একজন রাজনীতিক দায়িত্বজ্ঞানহীনের মতো কথা বলছেন। এই কথা বলা তাঁর শোভা পায় না বলেও মন্তব্য করেন রাজ্যপাল। একই সঙ্গে তাঁর গলায় শোনা গিয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর স্তুতিও।

No comments

Powered by Blogger.