Header Ads

বাংলাদেশি সাংসদ তমন্না অনেকটা তাঁর মতোই দেখতে মহিলাদের ভাড়া করে পরীক্ষা দিতে বসিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কৃত

ননী গোপাল ঘোষ : বাংলাদেশের ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লিগের সাংসদ তমন্না নুসরত তাঁর হয়ে পরীক্ষা দিতে অনেকটা তাঁর নিজের মতোই দেখতে আটজন মহিলাকে ভাড়া করেছিলেন। সেইসব ভাড়া করা মহিলারা তমন্নার হয়ে মোট ১৩টা পরীক্ষা দিয়েও দেন। কিন্তু শেষরক্ষা হল না,ধরা পড়ে তমন্না বিশ্ববিদ্যালয় থেকেই বহিষ্কৃত হয়ে গেলেন।
বাংলাদেশ মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএ পড়ছেন তমন্না নুসরত। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান এমএ মান্নান জানিয়েছেন, তাঁরা বহিষ্কার করেছেন তমন্নাকে। কারণ অপরাধ অপরাধই। তমন্নার এনরোলমেন্টও বাতিল করা হয়েছে । বাংলাদেশ মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে আর তমন্না ভর্তি হতে পারবেন না বলে জানান এমএ মান্নান।
তমন্নার কলেজের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, তমন্না সেজে পরীক্ষা দিতে আসা সেসব মহিলাদের সবসময় ঘিরে থাকত মাসলম্যানরা। অনেকেই যদিও জানত ব্যাপারটা, কিন্তু মুখ খোলেনি কেউ। কারণ , তমন্না বাংলাদেশের খুব প্রভাবশালী পরিবারের মেয়ে।
তমন্না নুসরতের মন্তব্য পাওয়া যায়নি এবিষয়ে। পরীক্ষায় নকল করা অথবা পরীক্ষার আগে প্রশ্নপত্র ফাঁস বাংলাদেশে খুব প্রচলিত ঘটনা। এর জেরে বহুবার ফলাফল ঘোষণা বাতিল করতে হয়েছে কর্তৃপক্ষকে।

No comments

Powered by Blogger.