Header Ads

পাঠানকোটে ফের জঙ্গি হামলার সতর্কতা, জোর নাকা তল্লাশি পাঞ্জাব জুড়ে

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : পাঠানকোটে ফের জঙ্গি হামলার আশঙ্কার কথা জানিয়ে পাঞ্জাব পুলিসকে সতর্ক করল গোয়েন্দারা। খবর পাওয়া মাত্র পাঠানকোট, গুরুদাশপুর জেলা জুড়ে শুরু হয়েছে জোর তল্লাশি। প্রায় ৫০০০ পুলিসকর্মী এই দুই জেলায় তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে। আরও তিন দিন এই তল্লাশি অভিযান চলবে বলে সূত্রের খবর।
রোজপুরে পাকিস্তানি ড্রোন উড়তে দেখে বিএসএফ জওয়ানরা। তার পরেই আধিকারিকরা নজরদারি শুরু করেন। বিএশএফের তরফে জানানো হয়েছে সন্ধে সাতটা ৫৫ মিনিট নাগাদও পাকিস্তানি ড্রোনকে ভারতের সীমান্তে উঁকি দিতে দেখা গিেয়ছে। পাঞ্জাব পুলিসের ডিএসপি সুখবিন্দর সিং জানিয়েছেন, গত দু'দিন ধরে সীমান্তবর্তী এলাকায় পাকিস্তানি ড্রোন উড়ে বেড়াতে দেখা যাচ্ছে। সোমবার ফিরোজপুরের হুসেনিওয়ালা সীমান্তে পাকিস্তানি ড্রোন উড়তে দেখা গিয়েছিল। রাত ১০টা থেকে ১০টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত দেখা গিয়েছিল ড্রোনটি। পারে আবার রাত ১২টা নাগাদ দেখা যায়। তারপরেই পাঞ্জাব পুলিসকে সতর্ক করে বিএসএফ।
বিএসএফের কাছ থেকে খবর পাওয়ার পরেই পাঠানকোট এবং গুরুদাশপুর জেলায় জোর তল্লাশি শুরু করছে পাঞ্জাব পুলিস। নাকা তল্লাশি চলছে শহরের বিভিন্ন এলাকায়। পাঠানকোটগামী সব যানবাহানে বিশেষ তল্লাশি চালানো হয়েছে। বসানো হয়েছে একাধিক চেক পয়েন্ট।
ভারতের কাশ্মীর সিদ্ধান্তের পর থেকে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা বেড়েছে। পাঞ্জাব অশান্ত করতে খালিস্থানপন্থী জঙ্গিদের মদত দিতে শুরু করেছে পাকিস্তান। সেকারণেই পাঞ্জাবে পাকিস্তানের ড্রোনের গতিবিধি বেড়েছে। কয়েকদিন আগেই পাকিস্তানি ড্রোন মারফত পাঞ্জাবে অস্ত্রবর্ষণ করা হয়েছে। খালিস্তান জিন্দাবাদ জঙ্গি সংগঠনের এই অস্ত্রবর্ষণে হাত রয়েছে বলে গোয়েন্দা সূত্রে খবর।
সেই ঘটনার পরেই পাঞ্জাব পুলিস আরও সতর্ক হয়েছে। খালিস্থানি জঙ্গিদের উষ্কানি বন্ধ করতে গোটা রাজ্য জুড়ে শুরু হয়েছে তল্লাশি। কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনিতে গোটা পাঞ্জাব। জারি করা হয়েছে হাই অ্যালার্টও।

No comments

Powered by Blogger.