Header Ads

বন সংরক্ষণের বার্তা নিয়ে কুমার পাড়ার নয়নতারা ক্লাব।চিপকো আন্দোলনকে তুলে ধরা হয়েছে




 দেবরযানী পাটিকার। দুর্গা নামের এক অসুরকে বধ করেছিলেন বলে  তিনি দুর্গা  দুষ্টের দমন ও শিষ্টের পালনের জন্য । অর্থাৎ অশুভ শক্তি জয় করে শুভ শক্তির প্রকাশ। সামাজিক ও সাংস্কৃতিক দিক দিয়ে দুর্গাপূজা এক মহত্বপূর্ণ উৎসব। আজ থেকে এই উৎসবের শুরু।  দেবীর বোধন অর্থাৎ ষষ্ঠীতেই দেবীর বোধন করা হয় অর্থাৎ জাগানো হয়,এর পর প্রাণ প্রতিষ্ঠা ও আমন্ত্রণ ,অধিবাস। সমস্ত পূজামণ্ডপ  বর্তমানে সেজে উঠেছে। নগরের কুমারপাড়ার নয়নতারা ক্লাবের পূজো নগরের একটি উল্লেখযোগ্য পূজা ।এবারে এই পুজার ৩০ বছর। এ বছরে পূজার প্রস্তুতি অনেক আগের থেকে শুরু হয়ে গেছে ।পারস্পারিক এবং ধার্মিক পরম্পরাকে নজরে রেখে মণ্ডপ সাজানো হয়েছে । সমগ্র মণ্ডপকে আকর্ষণীয় আলোকসজ্জা দিয়ে সাজানো হয়েছে ।এবার এখানে পর্যাবরণের ওপর অধিক গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। বন ধ্বংস না করার বার্তা নিয়ে এবারে রাজস্থানের খেজডলী গ্রামের চিপকো আন্দোলন কে দেখানো হয়েছে। এই গ্রামে এই জন্য বিখ্যাত যে প্রাচীন সময়ে যোধপুর মহারাজা নিজের মহল বানানোর জন্য গাছ কাটার নির্দেশ দেন।  বিষ্ণই সমাজের লোকেরা এর প্রতিবাদ করে এবং গাছ না কাটার জন্য ৩৬৩ জন লোক  প্রাণ বলিদান দিয়েছিল। বন ধ্বংস যে সমাজে কতটা ক্ষতি করে সেটাই দেখানো হয়েছে । এবার এখানে এবারের পুজো যথাসম্ভব ইকোফ্রেন্ডলি করা হয়েছে ।পুজো  সমিতির কার্যকরী সভাপতি রুপম ডেকা জানান যে মণ্ডপসজ্জা আলোকসজ্জার  ওপর বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এবারের পুজোর বাজেট ১৬ লাখ টাকা কলকাতা থেকে বিশেষ শিল্পী মূর্তি বানানোর জন্য এসেছে প্রায় দু'মাস আগে থেকেই মণ্ডপ তৈরি কাজ এখানে শুরু হয়েছিল এবং প্রায় ১৮ জন কারিগর দিন-রাত কাজ করেছে প্রত্যেক বছরের মতো এবারও অনেক দর্শনাথী হবে আশা করছে উদ্যোক্তারা ।কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না হয়  তার জন্য।১০ টি সিসি টিভি ক্যামেরা লাগানো হয়েছে । পূজামণ্ডপে স্বচ্ছতার উপর বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হবে ।প্লাস্টিকের ব্যবহার করা হবে না ।এবং সকালবেলাতে মণ্ডপে বাজবে ভক্তিমূলক সঙ্গীত।

No comments

Powered by Blogger.