Header Ads

পাশে আছি, ফারুকের জন্মদিনে বার্তা মমতার

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : ফারুক আব্দুল্লাহর ৮২ তম জন্মদিনে তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়ে পাশে থাকার বার্তা দিলেন মুখ্য়মন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কাশ্মীরের ন্যাশনাল কনফারেন্স দলের নেতা তথা জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এই মুহূর্তে পাবলিক সেফটি অ্যাক্টের অধীনে আটক রয়েছেন নিজের বাড়িতেই।
প্রসঙ্গত,১৯৭৮ সালে জন নিরাপত্তা আইন সংক্রান্ত এই পিএসএ আইনটি পাশ করিয়েছিলেন জম্মু ও কাশ্মীরের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী তথা ফারুখ আব্দুল্লাহর বাবা শেখ আবদুল্লাহ। প্রায় চার দশক আগের এই আইন অনুসারে, কোনও বিচার ছাড়াই এই আইনে যে কাউকে দু’বছর পর্যন্ত আটক করে রাখা যায়। কয়েক দশক ধরে জঙ্গি, বিচ্ছিন্নতাবাদী এবং ইট-পাটকেল ছোড়ার অপরাধে যুক্তদের বিরুদ্ধে এই আইনই ব্যবহার করা হচ্ছিল।
আজ ফারুক আব্দুল্লাহর জন্মদিন উপলক্ষে টুইট করে মমতা লেখেন, "ফারুক আব্দুল্লাহজী, আপনাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা। আপনার জন্য এই সময়টি খুব কঠিন। তবে আমরা আপনার সঙ্গে আছি। আপনি ইতিবাচক মনোভাব পোষণ করে থাকুন। ঈশ্বরের কাছে আপনার সুস্থতা কামনা করছি।"
৫ আগস্ট জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ প্রত্যাহারের ঘোষণার মধ্য দিয়ে কাশ্মীরের বিশেষ অধিকার বাতিল করা হয়। এরপর অপর একটি আইন পাশ করিয়ে জম্মু ও কাশ্মীরকে এবং লাদাখকে পৃথক দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করার কথা ঘোষণা করা হয়। এই পদক্ষেপকে কেন্দ্র করে কাশ্মীর জুড়ে মোতায়েন করা হয় বিপুল সংখ্যক অতিরিক্ত নিরাপত্তারক্ষী। ইন্টারনেট-মোবাইল পরিষেবা বন্ধ রাখা হয় বহুদিন। গ্রেফতার করা হয় সেখানকার বিচ্ছিনতাবাদী নেতা ও রাজনৈতিক নেতাদের। প্রাক্তন তিন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্লাহ, তাঁর ছেলে ওমর আব্দুল্লাহ ও মেহবুবা মুফতিকে আটক করে গৃহবন্দি করা হয়। এইভাবে রাজনীতিকদের আটক করে রাখার বিরুদ্ধে বহুবার সরব হয়েছে বিরোধীরা। সরব হওয়া বিরোধী নেতাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
চলতি বছরের জানুয়ারির ১৯ তারিখে ভারতের বিজেপি বিরোধী দল ও তাদের নেতাদের কলকাতায় আহ্বান জানিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইউনাইটেড ফ্রন্টের সেই মঞ্চে মোদী ও বিজেপি বিরোধী নেতাদের মধ্যে ছিলেন ফারুক আব্দুল্লাহও। এরপর লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির কাছে হেরে যায় বিরোধীরা। সেখান থেকেই বিজেপি বিরোধিতার সুর অনেকটাই নরম করেছে বিরোধী দলগুলির একাংশ। পরবর্তীতে জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার নিয়ে সরকারের পাশেও দাঁড়ায় তারা। তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জারি রাখেন বিজেপি বিরোধিতা। সেই দিক দিয়ে এক সুরে এখনও বিজেপি বিরোধিতায় অনড় রয়েছেন মমতা ও ফারুক। জম্মু ও কাশ্মীর থেকে বিশেষ মর্যাদা তুলে নেওয়ার পর থেকে আরও বেড়েছে বিজেপি বিরোধিতা।

No comments

Powered by Blogger.