Header Ads

মুর্শিদাবাদে আরএসএস সদস্যের হত্যাকাণ্ডের রিপোর্ট তলব রাজ্যপালের

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : মুর্শিদাবাদে বিজেপি কথিত আরএসএস সদস্য এবং পরিবারের নৃশংস হত্যাকাণ্ডের ঘটনার তীব্র নিন্দা করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার প্রশ্ন তুলে তিনি রাজ্য সরকারের কাছে রিপোর্ট তলব করেছেন।
সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রাজ্যপাল বলেছেন, মুর্শিদাবাদ জেলায় যেভাবে প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক এবং তাঁর স্ত্রী ও পুত্রকে নৃশংসভাবে খুন করা হয়েছে তাতে আমি ভীষণভাবে ব্যথিত এবং মর্মাহত। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা যে একেবারেই নেই এই ঘটনা তা বুঝিয়ে দিয়েছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রাজ্যপাল। এই ঘটনায় এজেন্সিকে দিয়ে তদন্ত করাবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। অপরাধীদের উদ্দেশ্য কী ছিল সেটা জানার জন্য অবিলম্বে তাদের গ্রেফতার করা জরুরি বলে জানিয়েছেন রাজ্যপাল। 
গত মঙ্গলবার মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জে প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক  গোপাল পাল(৩৫), তাঁর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী বিউটি এবং তাঁর ৮ বছরের ছেলেকে নৃশংসভাবে খুন করে দুষ্কৃতীরা। বাড়ির মধ্যেই রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার হয় তাদের দেহ। সূত্রের খবর কয়েকদিন আগেই নাকি ওই প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক আরএসএসে যোগ দিয়েছিলেন। রাজনৈতিক কারণেই এই হত্যাকাণ্ড কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা নিয়ে চড়েছে রাজনৈতিক উত্তেজনার পারদ।
ওদিকে মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জে সপরিবারে প্রাথমিক শিক্ষককে নৃশংসভাবে খুনের ঘটনা নিয়ে তীব্র শোক প্রকাশ করে রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। রাজ্যপালের এই প্রতিক্রিয়া রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে পাল্টা আক্রমণ শানালেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী এবং তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি অভিযোগ করেছেন রাজ্যপাল একটি খুনের ঘটনা নিয়ে যে মন্তব্য করেছেন সেটা সাংবিধানিক সীমা লঙ্ঘন করেছে। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিেয় তিনি যা বলেছেন পুরোটাই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে অভিযোগ করেছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। শিক্ষামন্ত্রীর দাবি উত্তর প্রদেশের অরাজক পরিস্থিতি থেকে নজর ঘোরাতেই রাজ্যপালের এই মন্তব্য !
মুর্শিদাবাদে প্রাথমিক শিক্ষক খুনের ঘটনা একেবারেই পারিবারিক বলে দাবি করেছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। অকারণে এই ঘটনার সঙ্গে রাজনৈতিক রঙ চড়ানো হচ্ছে বলে পাল্টা অভিযোগ করেছেন তাঁর। পার্থবাবুর দাবি, বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বকে ধামাচাপা দিতেই রাজ্যপালকে আসরে নামানো হয়েছে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, খুন হওয়া প্রাথমিক শিক্ষক কয়েকদিন আগেই আরএসএসে যোগ দিয়েছিলেন বলে দাবি করা হয়েছে। সে কারণেই সপরিবারে তাঁকে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ বিজেপির। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে রাজ্য সরকারের কাছে স্বচ্ছ-তদন্তের দাবি জানিয়েছিলেন এবং রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। এই ঘটনার সিবিআই তদন্তের জানিয়েছে বিজেপির রাজ্যসভাপতি দিলীপ ঘোষও।

No comments

Powered by Blogger.