Header Ads

রাজস্থানে থানায় হামলা চালিয়ে কুখ্যাত জঙ্গি পাপলাকে ছাড়িয়ে নিয়ে গেল সাগরেদরা

নয়া ঠাহর প্রতিবেদন : এ যেন সিনেমার পর্দার কোন দৃশ্য। ৫টি খুনের আসামি কুখ্যাত জঙ্গি বিক্রম গুজ্জর ওরফে পাপলারকে লকআপ থেকে ছাড়াতে তার সাগরেদরা হামলা চালায় থানায়। এরপর লকআপ ভেঙে তাদের সরদারকে পালিয়ে নিয়ে যায়। একেবারে ফিল্মি কায়দার এই ঘটনাটি ঘটেছে রাজস্থানের আলোয়ার জেলার বেহরোর থানায়।
কুখ্যাত জঙ্গি পাপলা।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, আজ সাতসকালে ১৫-২০ জনের একটি জঙ্গি দল গাড়ি নিয়ে থানার সামনে এসে নামে। সবার হাতে ছিল একে-৪৭ রাইফেল। গাড়ি থেকে নেমেই তারা এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করে। হতচকিত পুলিশ কর্মীরা তখন প্রাণ বাঁচাতে থানা ছেড়ে পালায়। প্রায় ৪০ রাউন্ড গুলি ছোঁড়ার পর দেখা যায় থানা একেবারে ফাঁকা। কোন পুলিশকর্মী নেই থানা তল্লাটে। নিশ্চিন্তে থানার ভেতরে ঢুকে লকআপ ভেঙে পাপলাকে নিয়ে পালিয়ে যায়।
আরও জানা গেছে, পালাবার সময় রাস্তায় দুষ্কৃতীদের একটি গাড়ি খারাপ হয়ে গেলে, তারা রাস্তায় দাঁড়ানো একটি পিক আপ ভ্যান চুরি করে রওনা দেয়। এখানেই নাটকের শেষ নয়।  কিছু দূর যাওয়ার পর রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা একটি স্করপিওর চালককে ভয় দেখিয়ে স্করপিওটিও নিয়ে যায় তারা। কুখ্যাত খুনি পাপলার ঘাঁটি হরিয়ানাতে। কুখ্যাত কুলদীপ গ্যাঙের সদস্য সে। হরিয়ানায় এক পুলিশকর্মী খুনের মূল আসামি পাপলা। প্রশাসন তার মাথার দাম ৫ লক্ষ টাকা রেখেছিল।
এই ঘটনার পর রাজস্থান প্রশাসনের দিকে আঙুল উঠতে শুরু করেছে। খোদ মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট পুলিশকর্তাদের কাছে কৈফিয়ত চেয়েছেন। বেহরোর পুলিশ সুপার আমনদীপ কাপুর জানিয়েছেন, পুলিশ তাড়া করেছিল পাপলা ও তার সাগরেদদের, রাস্তায় অবরোধও করা হয়েছিল। কিন্তু দুষ্কৃতীদের ধরা যায়নি। এখন অপরাধীদের ধরতে বিশেষ অপারেশন গ্রুপ তৈরি করেছে রাজস্থান পুলিশ।

No comments

Powered by Blogger.