Header Ads

গুয়াহাটিতে আংশিক বন্ধ,নলবাড়ি,ধুবরী,আর ডিব্রুগড়েও বন্ধের আংশিক প্রভাব



দেবযানী পাটিকর,গুয়াহাটি ।গুয়াহাটিতে বজরংগ  দলের ডাকা বন্ধের প্রভাব খুব কম পড়েছে ।শুধু নগরের মালিগওয়ের বড়বাজার এলাকার  প্রায় সব দুকান পাট বন্ধ ছিল।বাকী জায়গার বন্ধের প্রভাব পড়েনি।নগরের স্বাভাবিক জীবন যাত্রা স্বাভাবিক আগের মতোই অব্যাহত রয়েছে।অন্যান্য দিনের মতোই চলছে যানবাহন।গুয়াহাটির বাকী জায়গার সমস্ত দুকান ,বাজার খোলাই ছিল।স্কুল,কলেজ,অফিস কাছাড়ি সব খোলাই রয়েছে।নগরের বিজনেস হাব বলে পরিচিত ফাঁসি বাজারের সমস্ত দুকান বাজার খোলাই ছিল সেখানে বন্ধের কোনো প্রভাব পড়েনি।
উল্লেখনীয় যে বৃহস্পতিবার বজরংগ দল রাষ্ট্রীয় নাগরিক পঞ্জি( এনারসির )২০১৯বাতিল করে ১৯৫১ সনকে ভিত্তি বর্ষ করে নতুন করে রাষ্ট্রীয় নাগরিক পঞ্জিকরণ  প্রস্তুত করে আর হিন্দু  শরণার্থীদের নাগরিকত্ব নিশ্চিত করা ও ১৯৭১ সনের পরে অসমে আসা হিন্দু শরণার্থীদের কেন্দ্র সরকার দেশের অন্যান্য রাজ্যে সংস্থাপনের ব্যবস্থা করার দাবিতে  সকাল ৫ থেকে ১২ ঘণ্টা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছিল।এই বন্ধের সমর্থন দিয়েছিল আন্তঃ রাষ্ট্রীয় হিন্দু পরিষদের অসম প্রদেশ।ওদিকে নলবাড়ি ,ধুবরীতে রাজপথে  টায়ার জ্বালিয়ে প্রতিবাদ করে বজরঙ দলের সমস্ত সদস্যরা।ডিব্রুগড়ে বন্ধের প্রভাব আংশিক ভাবে পড়েছে।অসম বন্ধের সময় ডিব্রুগরের উত্তপ্ত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। ডিব্রুগড়ের গেলেরীয়া প্রেক্ষাগৃহে ঘেরাও করে বজরংগ দলের প্রতিবাদ কারীরা।ওই সময় প্রেক্ষাগৃহে জুবিন গার্গের কাঞ্চনজঙ্ঘা প্রদর্শনী চলছিল। বন্ধ সর্মথকরা প্রেক্ষাগৃহের প্রদর্শনী বন্ধ করার চেষ্টা চলায় ।ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ আটক করেছে কয়েকজন প্রতিবাদকারীদের ।এছাড়াও ডিব্রুগড়রের অনেক জায়গায় দেখা গিয়েছে বিক্ষোভ।এখানে বন্ধের প্রভাব পড়েছে ভালোমতোই। বিভিন্ন স্থানে যানবাহন চলাচলের সাথে সাথে দোকান বন্ধ হয়ে পড়েছে ।সাথে কয়েক জায়গায় টায়ার জ্বালিয়ে প্রতিবাদকারীরা প্রতিবাদ প্রদর্শন করে। এছাড়া রাজ্যে বন্ধের মিশ্রিত প্রভাব পড়েছে।নলবারী আর দলগাঁওতেও বন্ধের মিশ্রিত প্রভাব পড়েছে। এই সন্দর্ভে দুই দলের সদস্যরাই রাজ্যপালকে মেমরেন্ডাম দেবে বলে জানিয়েছে।

No comments

Powered by Blogger.