Header Ads

দু-বছর আগে থেকেই প্রার্থী বাছাই ! ২০২১-এ বাংলা দখলের লক্ষ্যে ঝাঁপাচ্ছে বিজেপি

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : সবেমাত্র লোকসভা নির্বাচন হয়েছে। রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন এখনও প্রায় দু-বছর আগেই। কিন্তু তর সইছে না বিজেপির। আসলে লোকসভা ভোটে যে আশাতীত সাফল্য এসেছে বাংলা থেকে, সেই রেশ মিলিয়ে দিতে চাইছে না বিজেপি নেতৃত্ব। ফোকাস ধরে রাখতে এখন থেকে ২০২১ বিধানসভার প্রস্তুতি শুরু করে দিল বিজেপি।
সম্প্রতি বিজেপির বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, পুজোর পর থেকেই প্রার্থী বাছাইয়ের কাজ শুরু করার। রাজ্য বিজেপির পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গীয়, অরবিন্দ মেননরা নির্দেশ দিয়েছেন ২৯৪টি বিধানসভা কেন্দ্রভিত্তিক আলাদা আলাদা রিপোর্ট তৈরির কথা। বিধানসভা ভিত্তিক আলাদা রিপোর্ট তৈরির নির্দেশ দেওয়া হয় রাজ্য নেতৃত্বকে।
এই রিপোর্ট তৈরির অঙ্গ হিসেবে প্রার্থী বাছাইের কাজও শুরু করে দেওয়া হবে। প্রতি কেন্দ্রে অন্তত তিনজন প্রার্থীকে বাছাই করতে হবে। কেন্দ্রভিত্তিক রিপোর্টে প্রার্থীদের নাম উল্লেখ থাকতে হবে। লোকসভা নির্বাচনের সাফল্য মাথায় রেখেই এখন থেকে এগোতে চাইছে বিজেপি।
বিজেপি তাঁদের বৈঠকে বুঝিয়ে দিয়েছে রাজ্যে ক্ষমতা দখলই গেরুয়া শিবিরের মূল লক্ষ্য। সেই কারণেই সংগঠন গুছিয়ে নিতে চাইছে তাঁরা। সেইসঙ্গে প্রার্থী বাছাইয়ের কাজও এগিয়ে রাখতে চাইছে বিজেপি। সম্ভাব্য যোগ্য প্রার্থী খুঁজতে তাঁরা মরিয়া হচ্ছে এখন থেকেই। বিধানসভা ভিত্তিক পৃথক রণকৌশল তৈরি করা তাঁদের আরও একটা বিশেষ লক্ষ্য।
বুথভিত্তিক কমিটি গড়ার কথাও বলা হয়েছে জেলা কমিটিগুলিতে। পুজোর পর থেকেই বিজেপি বাংলায় ঝাঁপিয়ে পড়ছে। বুথভিত্তিক সংগঠন শক্তিশালী করায় জোর দেওয়ার পাশাপাশি যোগ্য প্রার্থী খোঁজাই চ্যালেঞ্জ বিজেপির। আর এইকাজ সকলকে নিয়ে করার নির্দেশ দিয়েছেন কৈলাশ-মেননরা।
যদিও মুকুল রায় জানিয়ে দিয়েছেন, এখনই প্রার্থী নিয়ে কিছু ভাবছেন না তাঁরা। বরং সংগঠন মজবুত করতেই জোর দেওয়া হচ্ছে। ভারতের ইতিহাসে এমন নজির নেই যে ভোটের দু-বছর আগে প্রার্থী বাছাই হচ্ছে। আমরা সংগঠন বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছি। সেই কাজ চলবে।

No comments

Powered by Blogger.