Header Ads

কাশ্মীরে বিধিনিষেধ তুলে নিতে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে পাকিস্তান, দাবি ডোভালের

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : কাশ্মীর থেকে সবরমক বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করে নিতে চায় কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু পািকস্তানের আচরণ তা হতে দিচ্ছে না। এমনই দাবি করলেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল। প্রায় ১ মাস হয়েছে গিয়েছে কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপের। তারপরেই পুরোপুরি স্বাভাবিক করা যাচ্ছে না নতুন কেন্দ্রশাসিত এই অঞ্চলকে। তার জন্য একমাত্র দায়ী পাকিস্তান। এমনই চরম বার্তা দিয়েছেন ডোভাল। কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলোপের পর থেকেই কড়া নিরাপত্তার বেষ্টনিতে রয়েছে উপত্যকা। ইন্টারনেট পরিষেবা প্রায় বন্ধ। টেলিফোন পরিেষবাও এখন পুরোপুরি স্বাভাবিক হয়নি। স্কুল কলেজ খোলা থাকলেও তা তেমনভাবে চালু হয়নি। অভিভাবকরা ছেলেমেয়েদের স্কুলে পাঠাতে ভয় পাচ্ছেন। এমনই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে উপত্যকার। এই পরিস্থিতি থাকুক তা একেবারেই চায় না কেন্দ্রীয় সরকার। শনিবার এমনই বার্তা দিলেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল। তিনি জানিয়েছেন সরকার চায় কাশ্মীর দ্রুত স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে ফিরে আসুক। কিন্তু পাকিস্তানের আচরণই সেটা হতে দিচ্ছে না। পাকিস্তান জঙ্গিদের মতো আচরণ করছে বলে দাবি করেছেন তিনি। সেকারণেই পুরোপুরি নিরাপত্তার কড়াকড়ি প্রত্যাহার করা সম্ভব হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন তিনি। ডোভালের দাবি কাশ্মীরের ৯৫ শতাংশ এলাকা থেকেই বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে।
ডোভালের দাবি সীমান্তে একাধিক টাওয়ারের মাধ্যমে জঙ্গিদের উষ্কানিমূলক সঙ্কেত পাঠিয়ে চলেছে পাকিস্তান। সেই সঙ্গেতগুলি ধরে ফেলেছে গোয়েন্দারা। সঙ্গেতে নানা রকম সাঙ্কেতির ভাষা ব্যবহার করা হচ্ছে। যেমন সেনাবাহিনীরকে আপেল ট্রাক হিসেবে সঙ্কেতে বোঝানো হয়েছে। টাওয়ারে যে সাঙ্কেতিক ভাষা ব্যবহার করছে পাকিস্তান তাতে বলা হচ্ছে কতগুলি আপেলে ট্রাক সরেছে। আমরা কতগুলো চুরি পাঠাব। চুরি শব্দটি জঙ্গি-র সাঙ্কেতিক শব্দ হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এই ধরনের কার্যকলাপের কারণেই সাঙ্কেতিক কাশ্মীর থেকে পুরোপুরি নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা যাচ্ছো না বলে দাবি করেছেন ডোভাল।
কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তানের এই একের পর এক উষ্কানিমূলক বার্তার পরেও সেখানকার বাসিন্দাদের কথা মাথায় রেখে একাধিক পদক্ষেপ করা হয়েছে। ডোভালের দাবি কাশ্মীরে মোট ১৯৯টি থানা আছে তার মধ্যে মাত্র ১০ টি থানা এলাকায় বিধিনিষেধ আরোপ রয়েছে। বাকিগুলি স্বাভাবিক নিয়মে চলছে। এখনও পর্যন্ত ২৩০ জন জঙ্গিকে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিধিনিষেধ তুলে নিলেই এই জঙ্গিরা কাশ্মীরে ফের নাশকতা শুরু করবে বলে দাবি করেছেন ডোভাল। সেকারণেই এখনও একাধিক এলাকা থেকে বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করা যাচ্ছে না। 
উল্লেখ্য ৩৭০ ধারা বিলোপের সিদ্ধান্ত ঘোষণার পরের দিনই কাশ্মীরে চলে গিয়েছিলেন অজিত ডোভাল। সেখানে প্রায় ১৫ দিন থেকে নিজে এলাকার প্রশাসন এবং বাহিনীকে নিয়ন্ত্রণ করেছেন। সেখানকার বাসিন্দাদের সঙ্গে মিশে কথা বলেছেন। টানা ১৫ দিন কড়া নজরদারিতে রেখেছিলেন কাশ্মীরকে।

No comments

Powered by Blogger.