Header Ads

তৃণমূল কি সর্বভারতীয় দলের মর্যাদা হারাবে ! কমিশনের কড়া নোটিশ ঘিরে জল্পনা

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলের পর থেকে গোটা দেশের রাজনৈতিক মানচিত্রই পাল্টে গিয়েছে। কারণ বিজেপি ও সহযোগী দলগুলি বাদে অন্য রাজনৈতিক দলগুলি এবারের ভোটে অত্যন্ত খারাপ ফল করেছে। যার ফলে এক নয়া সমীকরণ তৈরি হয়েছে। কয়েকটি দলের জাতীয় দলের তকমা প্রায় মুছে যাওয়ার মুখে। এবং নির্বাচন কমিশন দলগুলিকে নোটিশ পাঠিয়ে জানতে চেয়েছে কেন তাঁদের জাতীয় দলের মর্যাদা দেওয়া হবে তা লিখিত আকারে জানাতে।
আগামী ৫ অগাস্টের মধ্যে নির্বাচন কমিশনকে উত্তর দিতে বলা হয়েছে। যে দলগুলি এই নোটিশ পেয়েছে তাদের মধ্যে রয়েছে এনসিপি বা ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি, তৃণমূল কংগ্রেস ও সিপিআই-এর মতো দলগুলি। 
২০১৪ সালের নির্বাচনে এনসিপি পেয়েছিল ৬টি আসন। এবার পেয়েছে মাত্র ৫টি আসন। মহারাষ্ট্রের নির্বাচনেও ভালো ফল করতে পারেনি শরদ পাওয়ারের দল। ফলে তাঁরা এখন অস্তিত্ব সঙ্কটে পড়েছে।
অন্যদিকে তৃণমূল ২০১৪ সালের নির্বাচনে ৩৪টি আসন জিতেছিল। এবার পেয়েছে মাত্র ২২টি। অন্য কোনও রাজ্যে তৃণমূলের কোনও আসন নেই। রয়েছে শুধু বাংলায়। এদিকে সিপিআই মাত্র সারা দেশে ২টি আসন জিতেছে।
২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের পরও সিপিআই, বহুজন সমাজ পার্টি ও এনসিপি জাতীয় দলের মর্যাদা হারানোর মতো পরিস্থিতিতে পড়েছিল। তবে জাতীয় ও রাজ্য দলের মর্যাদা পাঁচ থেকে বাড়িয়ে দশ বছর করায় কিছুটা স্বস্তি মিলেছিল তখন।
সাধারণত কমিশনের ১৯৬৮ সালের নির্দেশ অনুযায়ী নিয়ম হল জাতীয় দল হতে হলে তাঁদের অন্তত ছয় শতাংশ ভোট পেতে হবে চারটি বা তার বেশি রাজ্যে লোকসভা অথবা বিধানসভা নির্বাচনে। পাশাপাশি লোকসভায় অন্তত চারজন সদস্য থাকতে হবে। অন্তত তিনটি রাজ্য থেকে সদস্যদের নির্বাচিত হয়ে আসতে হবে।
প্রসঙ্গত এই মুহূর্তে তৃণমূল কংগ্রেস, বিজেপি, বিএসপি, সিপিআই, সিপিএম, কংগ্রেস, এনসিপি, এনপিপি দলের জাতীয় দলের মর্যাদা রয়েছে।

No comments

Powered by Blogger.