Header Ads

অঞ্চল সভাপতি করার প্রলোভন দেখিয়ে টাকা হাতিয়েছেন নেতা, কালীঘাটে অভিযোগ করে অপেক্ষায় তৃণমূল কর্মীর

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : অঞ্চল সভাপতি করার প্রলোভন দেখিয়ে টাকা হাতানোর অভিযোগ তৃণমূলেরই প্রাক্তন ব্লক সভাপতির বিরুদ্ধে। বিষয়টি নিয়ে কালীঘাটে দিদির বাড়ি পর্যন্ত ছুটেছেন দল অন্ত প্রাণ ওই কর্মী। লিখিত অভিযোগ করেছিলেন। বেশ কিছুদিন অপেক্ষার পর ওই কর্মী পুলিশ সুপারের দ্বারস্থ হয়েছেন। তবে এখন পর্যন্ত আশ্বাসই জুটেছে। কাজের কাজ কিছু হয়নি। ঘটনাটি মালদহের হবিবপুর ব্লকের বুলবুলচণ্ডীর।
অভিযুক্ত ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি প্রভাস ওরফে বট চৌধুরী। অভিযোগকারী ঋষিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের লোনপাড়া গ্রামের বাসিন্দা বাবলু মণ্ডল। 
দলের পদ পেতে তিনি দুলক্ষ টাকা দিয়েছেন বলে দাবি করেছেন। প্রমাণ তাঁর কাছে আছে বলেও দাবি করেছেন অভিযোগকারী। অন্যদিকে অভিযুক্ত নেতা প্রভাবশালী বটে। পুরনো ব্লক কমিটি ভেঙে মালদহ জেলা তৃণমূলের সভাপতি মৌসম বেনজির নূর অস্থায়ী কমিটি গঠন করেছেন। সেই কমিটিতে স্থান পেয়েছেন অভিযুক্ত বট চৌধুরীও।
স্থানীয় নেতৃত্ব, কালীঘাটে দিদির বাড়ি হয়ে এবার মালদহের পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ঋষিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের লোনপাড়া গ্রামের বাসিন্দা বাবলু মণ্ডল। সেখানে তিনি বলেছেন, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে, তাঁকে তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি করার লোভ দেখিয়ে ২ লক্ষ টাকা নেন ওই নেতা। কিন্তু মাসের পর মাস পেরিয়ে গেলেও প্রতিশ্রুতি পূরণ না হওয়ায় টাকা ফেরত চান বাবলু মণ্ডল। এরপর তাঁকে একা পেয়ে বাজারে মারধর করা হয় বলেও অভিযোগ করেছেন বাবলু মণ্ডল। 
তৃণমূল কর্মী বাবলু মণ্ডলের বয়ান অনুযায়ী, কালীঘাট থেকে তাঁকে মালদহ জেলার সভাধিপতি গৌর মণ্ডলের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলা হয়। সেখানে গিয়েও কোনও কাজ হয়নি বলে অভিযোগ।
যদিও নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত বট চৌধুরী। অভিযোগকারী বাবলু মণ্ডলকে পাগল বলেও অবিহিত করেছেন তিনি। পাশাপাশি ওই ব্যক্তি বিজেপির সঙ্গে যুক্ত বলেও দাবি করেছেন তিনি। যদিও গোটা ঘটনায় অস্বস্তিতে জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব।

No comments

Powered by Blogger.