Header Ads

কেন্দ্র শাসিত কাশ্মীরে প্রথম ঈদ, কড়া নিরাপত্তায় কীভাবে উৎসবে মাতল ভূস্বর্গ

বিশ্বদেব চট্টোপাধ্যায় : ৩৭০ ধারা বিলোপের পর কাশ্মীরে প্রথম উৎসব ঈদ। সকাল থেকে শান্তিপূর্ণই রয়েছে উপত্যকা। সকালে ঈদের প্রার্থনার জন্য নিরাপত্তা শিথিল করা হলেও পরে ফের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। উৎসবের দিনে কোনও ভাবেই অশান্তি ছড়াতে দিতে চায় না পুলিস প্রশাসন।
এখনও সেখানে রয়েছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা। একদিন আগেও কাশ্মীরের অনন্তনাগে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলতে দেখা গিয়েছে তাঁকে।
ইদের জন্য তিনদিন আগে থেকেই নিরাপত্তা শিথিল করা হয়েছিল কাশ্মীরে। যাতে উৎসবের প্রস্তুতি চালাতে পারেন উপত্যকার বাসিন্দারা। আত্মীয় পরিজনদের যাতে ঈদের শুভেচ্ছা জানাতে পারেন তাঁরা সেকারণে ৩০০টি টেলিফোন বুথের বন্দোবস্ত করা হয়েছে শ্রীনগরে। ব্যাঙ্ক এবং এটিএমও খোলা রাখা হয়েছে। এরই মধ্যে ১৫ অগস্ট জঙ্গি হামলার আশঙ্কা রয়েছে কাশ্মীরে। সেকারণে কড়া নজরদারি চালাচ্ছেন নিরাপত্তা আধিকারিকরা। কিছু জায়গায় এখনও ১৪৪ ধারা বহাল থাকলেও। দোকান বাজার খোলা রয়েছে।
রবিবার সকাল থেকেই ঈদের কেনাকাটা করেছেন বাসিন্দারা। নিরাপত্তার ঘেরাটপেই চলছে জনজীবন। রাস্তায় মানুষের আনাগোনা বেড়েছে। যানবাহনও স্বাভাবিকভাবেই চলাফেরা করছে। 
নিরাপত্তার কারণে ঘরে ঘরে গিয়ে সবজি, গ্যাস সিলিন্ডার, মাছ,ডিম, মাংস বিক্রির বন্দোবস্ত করেছিল জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসন। সকালে স্বাভাবিক ভাবে মসজিদে গিয়ে নমাজ পাঠও করেছেন উপত্যকার বাসিন্দারা। কেন্দ্র শাসিত জম্মু ও কাশ্মীর প্রথমেঈদ শান্তিপূর্ণই কাটাল।

No comments

Powered by Blogger.