Header Ads

মুখ্যমন্ত্রী জাতি মাটি সুরক্ষর অঙ্গীকার, আশ্বাস একজন বিদেশীর নামও এনআরসিতে অর্ন্তভুক্ত হবে না, সব ভারতীয় নাগরিকের নাম থাকবে

অমল গুপ্ত গুয়াহাটি
 দেশজুড়ে ৭৩ তম স্বাধীনতা দিবস আজ অসমের রাজধানী গুয়াহাটির খানাপাড়া ময়দানে কেন্দ্রীয় ভাবে উদযাপন করা হয়। মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে জাতি মাটি রক্ষার অঙ্গীকার করে আশ্বাস দিয়ে বলেন, জাতীয় নাগরিকপঞ্জীতে যাতে একজন ভারতীয় নাগরিকের নাম বাদ না যায়, একজন বিদেশীর নাম অন্তর্ভুক্ত না হয় তা সুনিশ্চিত করবে।

 ছবি, সৌঃ নিউজ ১৮অসম

সুপ্রিমকোর্টের তত্ত্বাবধানে এনআরসি কাজ হচ্ছে, ৫৫ হাজার কর্মচারী এই কাজে নিয়োজিত, অসম সরকার সবধরনের সহযোগিতা করছে। মুখ্যমন্ত্রী দুর্নীতি মুক্ত, বিদেশি মুক্ত,  সন্ত্রাস মুক্ত এবং প্ৰদূষণ মুক্ত প্রশাসন উপহার দেওয়ার অঙ্গীকার করেন। বলেন দুর্নীতির ক্ষেত্রে শূণ্য সহনশীলতা নীতি গ্রহণ করা হয়েছে। বরাক উপত্যকায় সার্বিক উন্নয়নের লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে, করিমগঞ্জে একটি ইঞ্জিযারিং কলেজ স্থাপনের সিদ্ধান্তের কথা জানান। মুখ্যমন্ত্রী এনআরসি-র শুদ্ধ নবায়নের সঙ্গে আসাম চুক্তির ৬ নম্বর ধারা যথাযথ রূপায়ণের  আশ্বাস দেন।

প্রতিটি বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের বিনামূল্যে স্যানিটারি ন্যাপকিন দেওয়ার জন্যে ভেন্ডিং মেশিনের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান। বিদ্যালয়গুলিতে সব সময় বিশুদ্ধ পানীয় জলের ব্যবস্থা থাকবে। খেলাধুলাকে প্রাধান্য দেওয়ার জন্যে ১০০০ ক্রীড়াবিদকে ৫০ হাজার টাকা করে অনুদান দেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। রাজ্যের ১ লাখ ভুমিহীন মানুষকে পাট্টা প্রদান, ১ হাজার কাঠের সেতুকে পাকা করা, ধর্মস্থানগুলিকে বেদখল মুক্ত, কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে স্থানীয়দের ৯০ শতাংশ হারে নিয়োগ প্রভৃতি প্রতিশ্ৰুতি দেন।

 কাজিরাঙার গণ্ডার হত্যা বন্ধে বিশেষ  ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলে দাবি করেন গণ্ডার হত্যা হ্রাস পেয়েছে, সেখানে ৩৩ টি হাইল্যান্ড নির্মাণ করা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী আলফার হাতে নিহত পুলিশ অফিসার ভাস্কর কলিতা, ক্রীড়াবিদ হিমা দাস, ফিল্মমেকার রিমা দাস প্রমুখদের অবদানের কথা জানান। অসমে তিন দিন ধরে স্বাধীনতা দিবস পালিত হচ্ছে।

 গতকাল একতা দৌড়, সাফাই অভিযান ছিল, আজ ছাত্র  ছাত্রীদের মধ্যে কুইজ প্রতিযোগিতা, ভক্তিমূলক সংগীত প্রভৃতির আয়োজন করা হয়। মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা লখিমপুরে, চন্দ্রমোহন পাটোয়ারী ডিব্রুগড়, রঞ্জিত দত্ত তেজপুর, প্রমীলা রানী  ব্রহ্ম বরপেটা, সিদ্ধার্থ ভট্টাচার্য যোরহাট, বিটিসি প্রধান হাগ্রামা মহিলরি কোকড়াঝাড়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন।

No comments

Powered by Blogger.