Header Ads

নিখোঁজ আন্তোনভ এএন৩২ বিমানটির ব্ল্যাক বক্স উদ্ধার, মিলল ১৩ জনের দেহও



নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, গুয়াহাটিঃ ভারতীয় বায়ুসেনার ভেঙে পড়া আন্তোনভ এএন৩২ বিমানটির কোনও সওয়ারিই আর বেঁচে নেই। ১৩জনই শহিদ হয়েছেন বলে বায়ুসেনার পক্ষ থেকে ট্যুইটে জানানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলের দিকে ১৩ জনের দেহও মিলল। পাওয়া গিয়েছে ব্যাক বক্সও। গত ৩ জুন পণ্যবাহী বিমানটি অসমের যোরহাট রানওয়ে থেকে অরুণাচলপ্ৰদেশের মেচুকার উদ্দেশ্যে টেক অফ করার ৪০ থেকে ৪৫ মিনেটের মধ্যেই এটিসি থেকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিল। বিমানটিতে ৫ জন যাত্ৰী এবং ৮ জন কৰ্মী ছিলেন। যান্ত্ৰিক ত্ৰুটির কারণে বিমানটি ভেঙে পড়েছে বলে প্ৰাথমিকভাবে আশঙ্কা করা হয়েছিল। এই ঘটনায় বায়ুসেনার বিমানের আধুনিক পরিকাঠামো নিয়েও প্ৰশ্ন উঠেছে। অরুণাচলপ্ৰদেশের সিয়াং জেলার গভীর ঘন জঙ্গলে বিমানের খোঁজ করতে স্থানীয় ৫জন শিকারীকে নিয়োগ করেছিল উদ্ধারকারীর দল। প্ৰকৃতি সেখানে অ্যাতোটাই দুৰ্গম যে কোনও ভাবেই ঠিকমতো উদ্ধারকাজ করা সম্ভব হয়নি। তল্লাশি অভিযানে নামে বায়ুসেনার সি-১৩০ জে বিমান, সুখোইএসইউ-৩০, নৌসেনার পি৮-আই বিমান। অভিযানে অংশ নেয় সেনা হেলিকপ্টারও। ইসরো-র উপগ্ৰহ চিত্ৰ এবং ড্ৰোনের সাহায্য নেওয়া হয়। বেশ কয়েকদিন ধরে রাতেও তল্লাশি অভিযান চালানো হয়েছিল। সেনা সূত্ৰে জানা গেছে, দুৰ্গম পাহাড়ি এলাকা এবং প্ৰতিকূল আবহাওয়া সেনাবাহিনীর কাছে কঠিন চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। তারপরেও হাল না ছেড়ে বিমানের খোঁজ দিতে পারলে ৫ লক্ষ টাকা পুরস্কারের ঘোষণা করা হয় বায়ুসেনার তরফে। অবশেষে মঙ্গলবার সন্ধ্যাবেলায় অরুণাচলপ্ৰদেশের লিপোয় এমআই-১৭ বিমানে আন্তোনভ বিমানটির ধ্বংশাবশেষ চোখে পড়ে। তবে দুৰ্ঘটনা স্থল দেখে বোঝাই যাচ্ছিল বিমানের আর কেউ বেঁচে নেই। বৃহস্পতিবার বায়ুসেনার তরফে তা নিশ্চিত করা হয়। কিছুক্ষণের মধ্যে ব্ল্যাক বক্সটিও উদ্ধার করা হয়। এই ব্ল্যাক বক্স থেকেই দুৰ্ঘটনার কারণ জানা যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।    

No comments

Powered by Blogger.