Header Ads

তীর্থযাত্রীদের সুবিধায় কামাখ্যা স্টেশনে খোলা হয়েছে ইনফরমেশন ডেস্ক


নয়া ঠাহর প্রতিবেদন, গুয়াহাটিঃউত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ে আগামী ২২ জুন থেকে আরম্ভ হওয়া অম্বুবাচী মেলা চলাকালীন গুয়াহাটি ও  কামাখ্যা স্টেশনে যাত্রীদের অতিরিক্ত ভিড় সুচারুরূপে পরিচালনা করার জন্য সমস্ত আয়োজন সম্পূর্ণ করেছে । অম্বুবাচী মেলা সময় কামাখ্যা স্টেশনে অনেক যাত্রীর সমাবেশ হয় ।সেজন্য স্টেশনে যাত্রীদের ভিড় সুচারুরূপে পরিচালনা করার জন্য ২০ জুন থেকে যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ে । যাত্রী সুবিধার জন্য যাতে অত্যাবশ্যকীয় তথ্য প্রদান করার জন্য কামাখ্যা স্টেশন এর ১ নম্বর ও ৪ নম্বর প্লাটফর্মে ইনফরমেশন ডেস্ক খোলা হয়েছে ।তীর্থযাত্রীদের সুবিধার প্রতি লক্ষ্য রেখে বিভিন্ন দিক থেকে আসা যাওয়া করা রেলগাড়ির বিষয়ে জানানোর জন্য স্থানীয় ভাষাতে ঘোষণা করা হবে। সঠিক ভিড়  নিরীক্ষণ করে তীর্থ যাত্রীদের  সঠিকভাবে পরিচালনা করার জন্য উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেল কর্তৃপক্ষ প্লাটফর্ম  ফুটওভার ব্রিজ ,প্রবেশ পথ ,রেলওয়ে ট্র্যাক, প্রবেশ পথ,লেভেল ক্রসিং,যথেষ্ঠ সংখ্যক নিরাপত্তা রক্ষী নিয়োগ করেছে  । তীর্থ যাত্রীদের চিকিৎসার জন্য প্রাথমিক ওষুধের সাথে মেডিকেল স্টাফ নিয়োগ করা হয়েছে ।২৪ ঘন্টাই স্টেশনে একজন চিকিৎসক উপলব্ধ হবে। এছাড়া বিভিন্ন সমস্যায় ভুক্তভোগী ব্যক্তিদের মাঝে ও আরএসএর প্যাকেট বিতরণ করা হবে। কামাখ্যা স্টেশন এ পিআরএস /ইউটিএস সেন্টারে দুটি অতিরিক্ত উইন্ড খোলা হয়েছে।মেলার সময়ে ২৪ ঘন্টাই সমস্ত টিকিট কাউন্টারে কর্মী থাকবে।কামাখ্যা মন্দিরে পিআরএস সেন্টারে একটা শিফটের জায়গায় দুটো শিফটে কাজ হবে। তীর্থ যাত্রী উঠানামা করার ক্ষেত্রে পর্যাপ্ত সময় প্রদান করার জন্য কামাখ্যা স্টেশনে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ রেলগাড়ির স্টপেজের সময় দুই থেকে পাঁচ মিনিট বৃদ্ধি করা হয়েছে ।কয়েকটা গাড়িতে অতিরিক্ত কামরা সংযোজন করার পরিকল্পনা করা হয়েছে ।স্টেশনে ২৪ ঘন্টার জন্য অত্যাবশ্যকীয় সামগ্রী ও  অতিরিক্ত কর্মচারী নিয়োগ করা হয়েছে। স্টেশনের পরিসরে  তীর্থযাত্রীদের জন্য অতিরিক্ত খাওয়ার জলের ট্যাপ প্রদান করা হয়েছে । স্টেশনে খুব সহজে আসা-যাওয়ার করার জন্য কয়েকটি স্থান বেদখল মুক্ত করা হয়েছে।  তীর্থযাত্রীদের ট্রেন থেকে উঠানামা করার ক্ষেত্রে সহায়তা করার  জন্য রেলওয়ে স্কাউট গাইড এর স্বেচ্ছাসেবক ২৪ ঘন্টা জন্য নিয়োগ করা হয়েছে। স্টেশনে আশেপাশে পর্যাপ্ত লাইটের ব্যবস্থা করা হয়েছে। স্টেশনে ২৪ ঘন্টাই সক্রিয় হয়ে থাকার একটি কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে যেখানে কর্মচারী এবং জ্যেষ্ঠ আধিকারিকরা সঠিকভাবে নিরীক্ষণ করে থাকবে। ২৪  ঘন্টাই আরপিএফ হেল্পলাইন নম্বর ১৮২ কার্যকরী হয়ে থাকবে।

No comments

Powered by Blogger.