Header Ads

ইস্ট-ওয়েস্ট করিডরের এএস২২ প্যাকেজের রাস্তা নির্মাণের দায়িত্ব পেয়েছে রত্না ইনফ্রা নামের নির্মাণ সংস্থা


    বিপ্লব দেব, হাফলংঃ শিলচর-সৌরাষ্ট্র ইস্ট-ওয়েস্ট করিডরের এএস ২২ প্যাকেজের মাইবাং থেকে জাটিঙ্গা পর্যন্ত সড়ক নির্মাণের কাজ ও সংস্কারের দায়িত্ব এবার রত্না ইনফ্রা প্রজেক্ট প্রাইভেট লিমিটেডের হাতে তুলে দেয় জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ (নাহাই)। প্রথমে এএস ২২ প্যাকেজের মাইবাং থেকে জাটিঙ্গা অংশে সড়ক নির্মাণের দায়িত্বে ছিল এন কে সি নামের নির্মাণ সংস্থা কিন্তু ভূতাত্বিক সমস্যায় পড়ে এনকেসি নির্মাণ সংস্থা কাজ ছেড়ে দেয়। তারপরই জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ ওই অংশের সড়ক নির্মাণের কাজের জন্য পুনরায় নতুন করে দরপত্র আহ্বান করে। ইতিমধ্যে জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ মাইবাং-জাটিঙ্গা অংশের সড়ক নির্মাণের দায়িত্ব তুলে দেয় সংশ্লিষ্ট নির্মাণ সংস্থার হাতে। এদিকে জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গিয়েছে। এএস ২২ প্যাকেজের মাইবাং-জাটিঙ্গা অংশ ছাড়া এএস ২১ প্যাকেজের জাটিঙ্গা থেকে হারাঙ্গাজাও অংশের সড়ক সংস্কারের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হবে রত্না ইনফ্রা প্রজেক্ট প্রাইভেট লিমিটেডের হাতে। তবে জাটিঙ্গা-হারাঙ্গাজাও অংশের ২৫ কিলোমিটার রাস্তা সংস্কারের জন্য ২৪ কোটি টাকার যে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে নাহাইর দিল্লি কার্যালয়ে এতে অনুমোদন মিললেই রাস্তা সংস্কারের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হবে রত্না ইনফ্রা নামের নির্মাণ সংস্থার হাতে বলে জানা গিয়েছে জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ সূত্রে। শুক্রবার নাহাইর গুয়াহাটি স্থিত আঞ্চলিক কার্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে এএস ২২ প্যাকেজের মাইবাং-জাটিঙ্গা অংশের সড়ক নির্মাণের জন্য কাজের বরাত ইতিমধ্যে রত্না ইনফ্রা নির্মাণ সংস্থাকে দেওয়া হয়েছে এবং শীঘ্রই ওই অংশে রাস্তার কাজ শুরু হবে। বর্তমানে জাটিঙ্গা হারাঙ্গাজাওয়ের মধ্যে সড়কটি মরণফাঁদে পরিনত হয়েছে। সড়কটির মধ্যে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। তীব্র গরমে গর্তগুলি মোষের দলের অবাধ বিচরণ ভূমিতে পরিণত হয়েছে। উল্লেখ্য, গত পাঁচ বছর কেন্দ্রের বিজেপি সরকার শিলচর-সৌরাষ্ট্র ইস্ট-ওয়েস্ট করিডরের জাটিঙ্গা থেকে হারাঙ্গাজাও অংশ ও মাইবাং থেকে জাটিঙ্গা অংশের নির্মাণ কাজ নিয়ে তেমন গুরুত্ব দেয়নি বলে অভিযোগ। তবে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে এবার বিজেপি সরকার ইস্ট-ওয়েস্ট করিডরের নির্মাণ কাজ সম্পূর্ণ করতে কি পদক্ষেপ করে তা হবে লক্ষনীয় বিষয়।

No comments

Powered by Blogger.