Header Ads

বিশ্ব জুড়ে পরিবেশ, অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করতে বিশ্ব অভিযানের ফ্ল্যাগ অফ করলেন বনমন্ত্রী পরিমল শুক্লবৈদ্য, ৮০টি দেশ সফর করবেন ঋতুরাজ ফুকন

বিশ্ব অভিযানের ফ্ল্যাগ অফ করে তা ঋতুরাজ ফুকনের হাতে ধরিয়ে দিচ্ছেন অসমের বনমন্ত্ৰী পরিমল শুক্লবৈদ্য (মাঝখানে), ডানদিকে ‘নয়াঠাহর’-এর সম্পাদক অমল গুপ্ত।  
নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, গুয়াহাটিঃ দেশজুড়ে পাহাড় প্রকৃতি, বনাঞ্চল নদনদী ধংস হচ্ছে, আকাশ বাতাস নদনদী দূষিত হচ্ছে। উষ্ণতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এবার রাজস্থানে ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপ মাত্রা, দেশের রাজধানী নগরী দিল্লির তাপমাত্রা ৫০ ডিগ্রি ছুঁয়েছে। যা সর্বকালের রেকর্ড। উত্তরপূর্বাঞ্চলেও উষ্ণতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বৃহস্পতিবার গুয়াহাটিতে ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল। গরমে মানুষ দগ্ধ হচ্ছে। তীব্র গরমে এদিন বাইহাটা এবং গুয়াহাটিতে একজন করে মারা গেছে বলে জানা গেছে। বিজেপি সরকার তাদের প্রতিশ্ৰুতি মতো ২৪ ঘন্টা বিদ্যুৎ দিতে পারছে না। গ্রাম অসমের মানুষ চরম  দুর্ভোগের মধ্যে পড়েছে। এই পেক্ষাপটে এদিন দিসপুর প্রেসক্লাবে বনমন্ত্রী পরিমল শুক্লবৈদ্য গ্রীন গার্ড নেচার-এর সম্পাদক প্রধান ঋতু রাজ ফুকনের মেরু অভিযানের ফ্ল্যাগ অফ করলেন। ঋতু রাজ ফুকন সারা বিশ্বের পরিবেশ পরিস্থিতির দ্রুত পরিবর্তন নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ দুই মেরু ঘুরে অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করবেন। সেইসঙ্গে অসমের পরিবেশ উন্নয়নে সেই অভিজ্ঞতা কে কাজে লাগাবেন। climate force arctic expedition to the north polar reg টিমের ভারতের একমাত্র প্রতিনিধি, এই অভিযানে সামিল হয়েছেন। তিনি জানান, এই টিম-এ থাকবেন রবার্ট সোয়ান এবং তাঁর পুত্র বার্নে সোয়ান এই পিতা পুত্র পায়ে হেঁটে উত্তর মেরু এবং দক্ষিণ মেরু সফর করেছিলেন। বিশ্ব জুড়ে সাংঘাতিকভাবে উষ্ণতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। দুই মেরুর সব বরফ গলছে, এর পরিণতি ভয়ানক প্রাকৃতিক বিপর্যয় ঘনিয়ে আসছে। এই টিমটি বিশ্বের ৮০ টি দেশ সফর করবে আগামী ১৫ জুন এই যাত্রা শুরু হবে। প্রথমে নরওয়ে  যাবে টিম টি। এই যাত্রার ফ্ল্যাগ অফ করে ঋতু রাজ ফুকনের এই উদ্যোগের সফলতা কামনা করে বনমন্ত্রী পরিমল শুক্ল বৈদ্য বলেন, বিশ্ব উষ্ণতার সঙ্গে অসমের বন ও পরিবেশের  সম্পর্ক আছে। অসম সরকার বন ও পরিবেশ উন্নয়নে বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। ৫ জুনে রাজ্যে বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালন করা হয়। ১ জুলাই থেকে এক সপ্তাহ ব্যাপী বন মহোৎসব শুরু হবে। সর্বএ গাছ রোপনের ব্যাপক ব্যবস্থা হয়েছে। তিনি দাবি করেন রাজ্যে ৩১ ভাগেরও বেশি বনাঞ্চল আছে। প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায় কম করেও ৩১ বনভূমি থাকা   আবশ্যক। চারদিকে বন জঙ্গল ধ্বংস সম্পর্কে বলেন এখন অনেক নিয়ন্ত্রণ হয়েছে। বিপন্ন প্রজাতির গণ্ডার হত্যাও কমেছে।



No comments

Powered by Blogger.