Header Ads

বদরপুর রেল স্টেশনে যাত্রী স্বাচ্ছন্দ‍্যের খোঁজ নিল ৩ সদস্যরের প‍্যাসেঞ্জার এনিমিটি কমিটি



নয়া ঠাহর প্রতিবেদন, বদরপুর: ৩ সদস্যর প্যাসেঞ্জার এমিনিটি  কমিটি ঘুরে দেখল বদরপুর প্ল‍্যাটফর্মের অবস্থা। যাত্রীরা ট্রেনে স্বাচ্ছন্দ‍্যে যাতায়াত করছেন কিনা তার খোঁজ খবর নিলেন কমিটির সদস‍্যরা। ভজন লাল শর্মা, হিমাদ্রি বল আর অমরেশ রায় এই তিন সদস্য পিএসই রবিবার বদরপুর রেল স্টেশন পরিদর্শন করেন।
তাঁদের কাছে নিত্য যাত্রীরা বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন। বরাক উপত্যকা তথা ত্রিপুরা মিজোরামের অজস্র যাত্রী নিত্যদিন ট্রেনে বহির্রাজ্যে যাতায়াত করলেও ট্রেনের সংখ্যা পর্যাপ্ত নয়। পানীয় জল, টয়লেট ইত্যাদি সমস্যা তো আছেই। সঙ্গে উন্নত মানের খাবারের অভাব।  প্ল্যাটফর্মে নিরাপত্তার জন‍্য সিসি ক্যামেরার অভাব ইত্যাদি সমস্যার কথা জানান। পুরো বদরপুর স্টেশনটিকে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনতে হবে। এপ্রোচ রোডটিকে পরিসর বাড়িয়ে আরও উন্নত করতে হবে। প্রতিবন্ধীদের জন্য স্টেশন লিফটের ব্যবস্হা থাকতে হবে। তাদের উপযোগী টয়লেট এবং ট্রলির ব্যবস্থা রাখতে হবে। এছাড়া প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির যাত্রীদের জন্য বাতানুকূল অপেক্ষাগারের  দাবি তুলেছেন যাত্রীরা।

রাজধানী ও হামসফর এক্সপ্রেস ছাড়া বাকি ট্রেন গুলোতে যে বায়ো টয়লেট ব্যবহার করা হয় তার দুর্গন্ধে কোচে টেকা যায় না। যাত্রীরা অবিলম্বে এগুলো উন্নত করার দাবি জানান। স্থানীয় সমস্যার মধ্যে শিলচর-ধর্মনগর, শিলচর -মহিসাশন ট্রেন দুটির আরও কয়েকটি কোচ বাড়ানো, এবং শিলচর-দুর্লভছড়া প্যাসেঞ্জার ট্রেনের সময় পরিবর্তনের দাবি তোলেন তারা। পিএসই কমিটির সঙ্গে আসা লামডিং ডিভিশনের ডিজিএম বিবি পান্ডে এবং এডিআরএম এস জোশী শিলচর গুয়াহাটি স্পেশাল ট্রেনটিকে নিয়মিত এবং আগরতলা শিলচর নিয়মিত নৈশ ট্রেন চালানোর পরিকল্পনা আছে বলে জানান। এদিনে পিএসই দলটি পুরো স্টেশন এবং আশপাশ এলাকা ঘুরে দেখেন। তারা যাত্রীদের সাথে সরাসরি কথা বলে বেশ কিছু সমস্যার কথা অবগত করেন। এদিনের যাত্রীদের দাবির মধ্যে নিউ করিমগঞ্জ স্টেশনটিকে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা এবং আরও একটি টিকেট কাউন্টার বাড়ানোর দাবিও জানান। স্থানীয় নেতাদের মধ্যে দীপক দেব সহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

No comments

Powered by Blogger.