Header Ads

কলকাতার তুলনায় গুয়াহাটির মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল তো মন্দিরঃ মন্তব্য অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্ৰী হিমন্ত বিশ্ব শর্মার


ছবি, সৌঃ আন্তৰ্জাল
নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, গুয়াহাটিঃ কলকাতার এনআরএস হাসপাতালে জুনিয়র ডাক্তারদের ওপর হামলার অভিযোগে সেখানে জুনিয়র ডাক্তারদের অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট শুরু হয়েছে গত বুধবার থেকে। সেই ধর্মঘট  সারাদেশে ছড়িয়ে গেছে। অসমেও ডাক্তাররাও কলকাতার ধর্মঘট করা ডাক্তারদের সর্মথনে পথে নেমেছেন। গুয়াহাটি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, শিলচর মেডিক্যাল কলেজ হসপিটাল, বঙ্গাইগাঁও প্রভৃতি হাসপাতালের ডাক্তাররা আন্দোলনে সামিল হয়েছেন। দেশের অন্যতম সমাজকর্মী বিনায়ক সেনের মত মানুষও কলকাতার জুনিয়র ডাক্তারের সমর্থনে পথে নেমেছেন। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জুনিয়র ডাক্তারদের আন্দোলনের পিছনে বিজেপির হাত আছে বলে ইঙ্গিত দেওয়ায় পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে। অসমের স্বাস্থ্য মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা শুক্ৰবার নলবাড়ি সিভিল হাসপাতালে কিডনি রোগীদের বিনামূল্যে ডায়ালেসিস পরিষেবার সূচনা করেন। এদিন তিনি কাশ্মীরে জঙ্গি হামলায় শহিদ সেনা জওয়ান নিরোদ শৰ্মার বাড়িতেও যান। এদিন পশ্চিমবঙ্গের হাসপাতালের স্বাস্থ্য পরিসেবার তীব্র সমালোচনা করে বলেন, কলকাতার  দুটি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে গরিব মানুষ কোনও চিকিৎসা পরিষেবা পায়না। হাসপাতালের মেঝেতে ১০ দিন বিনা চিকিৎসায় পরে থাকার পর ডাক্তাররা রোগী দেখেন। তাও ভালো চিকিৎসা নয়, একই অবস্থা ওড়িশারা কটকের   মেডিক্যাল কলেজ গুলির। সেখানেও রোগীদের ঠিকমতো চিকিৎসা হয় না। গুয়াহাটি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সঙ্গে তুলনা করে হিমন্ত বলেন, আমাদের হাসপাতালগুলি তো মন্দির, সব ধরনের চিকিৎসা হয়। তবে আরও ভালো চিকিৎসা করতে হবে। তিনি বলেন, কলকাতা এবং কটকের মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দুরাবস্থা সাংবাদিকদের দেখে আসা উচিত। পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য বিভাগের দায়িত্বে আছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তাঁর ভূমিকারও সমালোচনা করেন স্বাস্থ্য মন্ত্রী শর্মা। তিনি জানান, একটিমাত্র জেলা নলবাড়িতে ১৫৬৩ জন ব্যাক্তি  অটল অমৃত যোজনার এবং ২১৪৪ জন আয়ুষ্মান ভারত কার্ড নিয়ে বিনা পয়সায় চিকিৎসা সেবা নিয়েছেন। সারা রাজ্যের মানুষ এই চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন। পশ্চিমবঙ্গে এই পরিষেবা    পাওয়ার কথা সেখানকার মানুষ ভাবতেই পারবে না।

No comments

Powered by Blogger.