Header Ads

ব্রডগেজের ক্ষতিপূরণ ইস্যু নিয়ে ৩ জনের কমিটি গঠন উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলের


   বিপ্লব দেব, হাফলংঃ লামডিং-শিলচর ব্রডগেজ রেলপথ নির্মান কাজ করতে গিয়ে ডিমা হাসাও জেলার নিউহাফলং থেকে হারাঙ্গাজাও পর্যন্ত যে সব গ্রামবাসীর কৃষি জমির ক্ষতি হয়েছে তা খতিয়ে দেখতে তিন জনের এক কমিটি গঠন করেছে উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেল। ওই কমিটিতে রয়েছে উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলের নির্মান শাখার ডেপুটি চিফ ইঞ্জিনিয়ার এডিএন ও ডিমা হাসাও জেলাপ্রশাসনের একজন প্রতিনিধি। বৃহস্পতিবার এন সি হিলস ইন্ডিজেনাস স্টুডেন্টস ফোরামের সভাপতি ডেভিড কেভম সহ ছাত্র সংগঠনটির প্রতিনিধিদের উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলের নির্মান শাখার জেনারেল ম্যানেজার নীলেশ কিশোর প্রসাদ মালিগাঁওয়ে দপ্তরে ডেকে পাঠিয়ে বলেন ক্ষতিপূরণের ইস্যুটি সমাধান করতে রেলবিভাগ সম্পূর্ণ দায়বদ্ধ। তবে জমি অধিগ্রহন না করে ল্যান্ড ডেভলপম্যান্ট বাবদ জমির ক্ষতিপূরণ মিটিয়ে দেওয়ার কোন নিয়ম নেই। একমাত্র জমি অধিগ্রহন করলেই রেল একমাত্র ক্ষতিপূরণ মিটিয়ে দিতে সক্ষম। নির্মাণ শাখার জিএম ছাত্র সংগঠনটির প্রতিনিধিদের বলেন উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেল ইতিমধ্যে ক্ষতিপূরণের ইস্যু সহ নিউহাফলং থেকে হারাঙ্গাজাও পর্যন্ত গ্রামবাসীদের কৃষি জমি ক্ষতি হয়েছে তা খতিয়ে দেখে ওই কমিটি রাজস্ব বিভাগের কাছে এর রিপোর্ট দাখিল করার পর রেলবিভাগ ক্ষতিপূরণ ইস্যু  নিয়ে চিন্তা ভাবনা করবে। জিএম ছাত্র সংগঠনের প্রতিনিধিদের আশ্বস্ত করে বলেন উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেল কর্তৃপক্ষ গঠন করে দেওয়া তিনজনের কমিটি সমগ্র বিষয়টি খতিয়ে দেখে গ্রামবাসীদের জমি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বলে রিপোর্ট দাখিল করে তাহলে উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেল শীঘ্রই ক্ষতিগ্রস্থ গ্রামবাসীদের  ক্ষতিপূরণ মিটিয়ে দিতে পদক্ষেপ করবে বলে নির্মাণ শাখার জিএম নীলেশ কিশোর প্রসাদ ইন্ডিজেনাস স্টুডেন্টস ফোরামের প্রতিনিধিদের জানিয়ে দেন। উল্লেখযোগ্য লামডিং-শিলচর ব্রডগেজ প্রকল্পের নির্মাণ কাজ করতে গিয়ে নিউহাফলং থেকে নিউ হারাঙ্গাজাও পর্যন্ত প্রায় ৫০ টি গ্রামের ৫০০ পরিবারের কৃষি জমি ক্ষতিগ্রস্থ হয়। কিন্তু আজ অবধি উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেল কর্তৃপক্ষ ওই ক্ষতিগ্রস্থ গ্রামবাসীদের ক্ষতিপূরণ মিটিয়ে না দেওয়ায় এন সি হিলস ইন্ডিজেনাস স্টুডেন্টস ফোরাম দীর্ঘদিন থেকে আন্দোলন করে আসছে।

No comments

Powered by Blogger.