Header Ads

অসমে এনআরসি-র নামে বাঙালিদের হেনস্থা করছে বিজেপি সরকার, অভিযোগ মমতার

ছবি, সৌঃ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট

 মুর্শিদাবাদের কান্দি থেকে অমল গুপ্ত

বুধবার পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলার কান্দি শহরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করলেন, মোদির জমানা শেষ। ২০১৯ এ দিল্লিতে দেশের আঞ্চলিক দলগুলির সমর্থন নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস ও উত্তরপ্রদেশের বিজেপি বিরোধী দলগুলো সরকার গড়বে। মমতা পরিসংখ্যান তুলে বলেন- পশ্চিমবঙ্গে ৪২টি লোকসভা আসনের মধ্যে ৪২টি দখল করবে। অন্ধ্রপ্রদেশে একটিও আসন পাবে না, কর্নাটকে ৬০ শতাংশ, রাজস্থান ও মধ্য প্রদেশেও ৬০ ভাগ আসন বিরোধীরা পাবে। উত্তরপ্রদেশে অখিল, মায়াবতীরা পাবেন ৮০টি আসন। মমতা এমনও দাবি করেন দেশের জনগণ ইতিমধ্যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রে হিটলারি ফ্যাসিস্ট সরকারকে আর ভোট নয়। সিপিএম ও কংগ্রেস দলকে বিজেপির দালাল বলে আখ্যা দিয়েছেন মমতা। সারদা কেলেঙ্কারি সম্পর্কে তিনি বলেন- তাঁর সরকার সরদার মালিককে কাশ্মীর থেকে গ্রেফতার করেছিল। সারদা নারদা হয়েছিল, সিপিএম আমলে। মুর্শিদাবাদ জেলার ১০ নম্বর বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী অপূর্ব সরকারের পক্ষ্যে প্রচার অভিযানে মমতা এদিন কান্দি শহরের মোহনবাগান মাঠে এক বিশাল জনসভায় ভাষণ দেন। তিনি অসমের প্রসঙ্গ  তুলে বলেন, সেখানে নাগরিকপঞ্জি রূপায়ণের নামে ৪০ লক্ষ মানুষের নাম বাদ দিয়েছে। তার মধ্যে ২২ লক্ষ বাংলালির নাম বাদ পড়েছে, অথচ বিজেপি বাঙালি হিন্দুদের রক্ষা করতে পারছে না। এনআরসি তালিকা থেকে মুসলিম এবং হিন্দিভাষীর নাম বাদ পড়েছে। জোরের সঙ্গে বলেন তারা রাজ্যে এনআরসি হতে দেবে না। নাগরিকত্ব বিল সম্পর্কে বলেন- অসমে ভারতীয় নাগরিকের বৈধ নথি পত্র থাকা সত্বেও নাম কাটা হয়েছে বাঙালিদের। তালিকায় বাবার নাম আছে, মায়ের নেই, বাবা মার আছে, তো সন্তানদের নাম নেই। ৬ বছর এদেশে থাকার পর নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা বলছে। এদেশে জন্ম, এদেশের নাগরিককে বিদেশি সাজানো হচ্ছে। দেশের অর্থনীতির কথা তুলে বলেন- দেশে ১২ কোটি বেকার, জেট এয়ারলাইন্স বন্ধ হয়ে  যাবে, বিএসএনএলের ৫০ হাজার কর্মচারীর চাকরি চলে যাবে, এয়ার ইন্ডিয়া বন্ধ হবে, ১২ হাজার কৃষক আত্মহত্যা করেছে। তেলের দাম বেড়েই চলেছে। মমতা বলেন- মোদি বাবু বলছেন, বিমানে যারা বেশি টাকায় টিকিট কিনবেন তাদের চিকেন খাওয়ান হবে, কম টাকার টিকিট কাটলে নিরামিশ খেতে হবে। নোটবন্দি করে মোদি বাবু দেশকে সর্বনাশের দিকে ঠেলে  দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। রাজ্যে সুখ শান্তির লক্ষ্যে তৃণমূল কংগ্রেসকে ভোট দেবার আর্জি জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেন, জন্ম থেকে মৃত্য পৰ্যন্ত তৃণমূল সরকার যে কাজ করেছে তা দেশ নয়, পৃথিবীর কোনও দেশও পারবে না। প্রার্থী অপূর্ব সরকার বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একজন স্টেটসম্যান দেশের জননেত্রী, নতুন ভারতের ডাক দিয়েছেন। আমার মতো একজন সাধারণ ঘরের ছেলেকে প্রার্থী করেছেন আমি কৃত্যজ্ঞ, মুর্শিদাবাদের মানুষ আমার পরিবার, তার সন্তানদের উন্নয়ন মানে আমার উন্নয়ন।

No comments

Powered by Blogger.