Header Ads

ফের চালু হচ্ছে দিল্লি-লাহোর সমঝোতা এক্সপ্ৰেস, নিরাপত্তার খাতিরে রেড অ্যালাৰ্ট জারি দেশের গুরুত্বপূৰ্ণ বিমানবন্দর, রেলস্টেশনগুলিতে


নয়া ঠাহর প্ৰতিবেদন, নয়াদিল্লিঃ প্ৰায় ৬১ ঘন্টা পর পাকিস্তান থেকে শুক্ৰবার রাত সোয়া ৯ টা নাগাদ ভারতের মাটিতে পা রাখেন ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বৰ্তমান। তারপরই ভারত-পাক দুদেশের মধ্যে বন্ধ হয়ে যাওয়া সমঝোতা এক্সপ্ৰেস পুনরায় চালু করার সিদ্ধান্ত নেয় দুই প্ৰতিবেশী দেশ। খবরে প্ৰকাশ, রবিবার অৰ্থাৎ ৩ মাৰ্চ ভারতের রাজধানী দিল্লি থেকে লাহোরের উদ্দেশ্যে রওনা দেবে সমঝোতা এক্সপ্ৰেস। অন্যদিকে, সেই ট্ৰেনটিই ফের আগামী সোমবার ফিরবে লাহোর থেকে। দু’দেশের মধ্যে উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যেও সাধারণ মানুষের কথা মাথায় রেখেই ফের সমঝোতা এক্সপ্ৰেস চালু করা হচ্ছে। শুক্ৰবার রাতে অভিনন্দনকে নিরাপত্তার মধ্যে ওয়াঘা-অটারী সীমান্ত থেকে সোজা নিয়ে যাওয়া হয় অমৃতসর বিমানবন্দরে। সেখান থেকে বিশেষ বিমানে করে দিল্লির পালম এয়ারবেসে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। তখন তাঁর সঙ্গে ছিলেন কেয়কজন মাত্ৰ সেনা অফিসার। পালম এয়ারবেস থেকে তাঁকে  দিল্লির সুব্রত পার্কের এয়ারফোর্স সেন্ট্রাল মেডিক্যাল এসটাব্লিশমেন্ট-এ নিয়ে যাওয়া হয়। বায়ুসেনার ওই হাসপাতালে রাতেই তাঁর প্রথামিক মেডিক্যাল চেকআপ করা হয়। পরিবারের সঙ্গে এক ঝলক দেখা হয়। তবে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কোনও কথা হয়নি তাঁর। হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়, রাতে হালকা খাবার খেয়েছেন অভিনন্দন। ঘুমোতে যান রাত একটা নাগাদ। হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়, রাতে ভাল ঘুম হয়েছে তাঁর। সকালের জলখাবারের পর ফের একবার মেডিক্যাল চেক আপ হয় তাঁর। এদিন সারা দিন ধরে নানা ধরনের শারীরিক পরীক্ষার মুখোমুখি হতে হয় তাঁকে। তাঁর শরীরে পাকিস্তান থেকে কোনও চিপ আটকে দেওয়া হয়েছে কি না বা কোনও গোপন ক্যামেরা, বাগ স্ক্যানিং করে সমস্ত কিছু চিহ্নিত করা হবে। দেশের নিরাপত্তার খাতিরেই অভিনন্দনের বাগ স্ক্যানিং করা হবে বলে জানা গিয়েছে। তবে কত দিন অবধি এই পরীক্ষাগুলো চলবে সে বিষয়ে স্পষ্ট কিছু জানা যায়নি। অন্যদিকে, শনিবার বিমানবন্দর উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি এসেছে পাকিস্তান থেকে। এই প্ৰেক্ষিতে সারা দেশে গুরুত্বপূৰ্ণ বিমানবন্দরগুলিতে লাল সংকেত জারি করা হয়েছে। গুয়াহাটি বিমানবন্দর, রেলস্টেশনে অতিরিক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা করে সতৰ্ক করে দেওয়া হয়েছে। অসমের লাহরিঘাট পুলিশ থানার কনস্টেবল রফিকুল ইসলাম খান ও ফেসবুকে ইসলাম ধৰ্মটা খুব দয়ালু, ইমরান খান ইজ গ্ৰেট- মন্তব্য পোস্ট করায় তাকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। সেনা বাহিনীর তিন প্ৰধানকে জেড প্লাস ক্যাটাগরির নিরাপত্তার ব্যবস্থা দেওয়া হয়েছে। শুক্ৰবার থেকে পাকিস্তান নিয়ন্ত্ৰণ রেখা বরাবর গোলাবারুদ ছোড়া অব্যহত রেখেছে। এক সীমান্তে মা তার দুই সন্তান সহ ৩ জন নিহত হয়েছে। তারা অভিনন্দনকে ছাড়ার পর তার বয়ানকে ১৯ বার পাল্টিয়েছে। সামরিক হাসপাতালে প্ৰতিরক্ষা মন্ত্ৰী নিৰ্মলা সীতারমণ অভিনন্দনের সঙ্গে দেখা করেন। পাকিস্তানে কিভাবে কোন পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছেন তাঁর খোজখবর নিয়েছেন। এদিকে আবার জম্মু ও কাশ্মীরের পুঞ্চ এবং রজৌরি সেক্টরে পাকিস্তান সেনা গত ৫-৬ দিন ধরে ক্ৰমশ গুলিবৰ্ষণ করার কারণে সে জায়গায় অতিরিক্ত ২০০ টি করে মোট ৪০০টি বাঙ্কার তৈরি করার ব্যবস্থা করছে প্ৰশাসন। গ্ৰামোন্নয়ন বিভাগ থেকে অৰ্থ নিয়ে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আগামী এক মাসের মধ্যে বাঙ্কার তৈরি করার নিৰ্দেশ দিয়েছে জম্মু ও কাশ্মীর প্ৰশাসন।  
  

No comments

Powered by Blogger.